বাগেরহাটে ফুটপাত দখলমুক্ত রাখতে পৌরসভা ও সদর উপজেলার যৌথ অভিযান শুরু

0
21

বাগেরহাট প্রতিনিধি

অবশেষে বাগেরহাট পৌরশহরের বিভিন্ন সড়ক এবং বাজারের ফুটপাত দখলমুক্ত ও পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ভ্রাম্যমাণ আদালতের যৌথ অভিযান শুরু হয়েছে। রবিবার (২০ নভে¤॥^র) বিকেলে এবাগেরহাট পৌরসভার প্রধান নির্বাহী ও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মাদ মোছাব্বেরুল ইসলামের নের্তৃেত্ব পৃথক চারটি টিম ই অভিযান শুরু করে।

অভিযানকারীরা পৌরশহরের সড়কের দুইপাশে ফুটপাতে থাকা বিভিন্ন ব্যবসায়িক মালামাল ও বর্জ্য অপসারণের নির্দেশ প্রদান করেন। ব্যবসায়ীরা স্বেচ্ছায় তাদের দোকানের সীমানার বাইরে থাকা পন্য ও ময়লা-আবর্জনা পরিস্কার করে ফেলেন। ভবিষ্যতে দোকানের সীমানার বাইরে ফুটপাতে কোন প্রকার ময়লা এবং পণ্য রাখতে ফুটপাত ব্যবহার না করার অঙ্গিকার আদায় করা হয়।

এদিকে জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের এমন উদ্যোগকে অবশেষে স্বাগত জানিয়েছেন স্থানীয় নাগরিকরা।

অজানা ভয় থাকা স্বত্বেও একাধিক সচেতন নাগরিক বলেন, শহরের প্রান কেন্দ্র কাজী নজরুল সড়ক পাশের ব্যবসায়ীরা দীর্ঘদিন ধরে পথচারীদের চলাচলের ফুটপাত দখল করে রেখেছে। বিশেষ করে ওয়েল্ডিং কারখানা ও সেনেটারী ব্যবসায়ীরা ফুটপাত বেশী দখলে রেখেছে। এখন প্রশাসন ফুটপাত দখলমুক্ত ও পরিস্কার রাখার অভিযান শুরু করেছে। তবে এই প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার দাবি করেছেন তারা।

আলম শেখ নামের এক ব্যক্তি বলেন, দোকানের সামনের পণ্য ও ময়লা অপসারণ করার ফলে যানজট অনেক কমবে। পায়েহেটে মানুষ অনেক স্বাচ্ছন্দে তাদের গন্তব্যে পৌঁছাতে পারবে। তবে এই অভিযানের ধারাবাহিকতা না থাকলে কিছুদিন পরে আবারো ব্যবসায়ীরা ফুটপাত দখল করে ফেলবে বলেও অভিযোগ করেন এই ব্যক্তি।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের চারটি টিমের নেতৃত্বে থাকা বাগেরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ মুছাব্বেরুল ইসলাম বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধ এবং যানজটমুক্ত সড়ক নিশ্চিত করতে বাগেরহাট পৌরসভার বিভিন্ন স্থানে কয়েকদিন ধরে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। প্রতিদিন একাধিক টিম অভিযান করছে। শুধু বাগেরহাট সদর উপজেলায় নয়, জেলার প্রতিটি উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ বাজার ও জনবহুল স্থানে এই অভিযান অব্যাহত আছে। যারা অবৈধভাবে ফুটপাত আটকে রেখেছে তাদেরকে এখন শুধু সতর্ক করা হচ্ছে। ভবিষ্যতে যদি এভাবে ফুটপাত আটকে পণ্য রাখে বা ফুটপাতে দোকানের ময়লা আবর্জনা ফেলে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।