যশোরে ডিবি পুলিশের সহযোগীতায় চাঁদা নিতে এসে চার চাঁদাবাজ গ্রেফতারের ঘটনায় মামলা

0
27

বিশেষ প্রতিনিধি

কাপড় ব্যবসাযীর কাছ থেকে জমি ক্রয় করার পর তার ভাইয়ের জমি ক্রয়ের পায়তারার এক পর্যায় ৫ লাখ টাকা চাঁদাদাবি করে হুমকী ধামকীর এক পর্যায় ৫০ হাজার টাকা চাঁদা স্বরুপ নিয়ে বাকী সাড়ে ৪ লাখ টাকা নিতে এসে চার চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশের একটি চৌকসদল।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে, যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার পুরোন্দপুর (বিহারী পাড়া) গ্রামের মৃত জামাল উদ্দিনের ছেলে মনিরুল ইসলাম ওরফে মনি, একই এলাকার এনায়েত হোসেনের ছেলে মামুন আহম্মেদ ওরফে সুমন, প্রাইভেট কারের চালক রবিউল ইসলামের ছেলে শরিফুল ইসলাম ও একই উপজেলার কৃষ্ণনগর গ্রামের মৃত সানারউদ্দিনের ছেলে আজিজুর রহমান ওরফে পান্ডু। চাঁদাদাবি ও চাঁদা স্বরুপ টাকা গ্রহনের ঘটনায় ৮ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার রাতে কোতয়ালি মডেল থানায় মামলাটি করেন, যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার গদখালী নবীননগর গ্রামের বর্তমানে চাঁচড়া মধ্য পাড়ার মৃত শহিদুল্লাহ সরদারের ছেলে তুহিন সরদার।

মামলায় তুহিন সরদার বলেন, তিনি যশোরসহ বিভিন্ন এলাকায় কাপড়ের ব্যবসা করেন। ঝিকরগাছা উপজেলার পুরোন্দপুর (বিহারীপাড়া) তার ক্রয়কৃত ৩শতক জমি আছে। উক্ত জমি ঝিকরগাছা উপজেলার বামনালী (চাপাতলা) গ্রামের আব্দুল হক পাটোয়ারীর ছেলে রাসেল পাটোয়ারীর কাছে নগদ ১০ লাখ টাকায় বিক্রি করে দেন তুহিন সরদার।

তুহিন সরদারের জমির দাগে তার বড় ভাই হাবিব সরদারের জমি ক্রয় করার পায়তারা করাসহ হুমকী দিতে থাকে। এক পর্যায় গত ২ ফেব্রুয়ারী রাসেল পটোয়ারীসহ তার সহযোগী ঝিকরগাছা পুরোন্দপুর (বিহারী পাড়া) গ্রামের মনিরুল ইসলাম ওরফে মনি, মামুন আহম্মেদ ওরফে সুমন, শরিফুল ইসলাম, জাহিদ হাসান ওরফে রনিসহ অজ্ঞাতনামা ২/৩জন রাত ১০ টায় চাঁচড়া মধ্য পাড়ার বাদি তুহিন সরদারের বাড়িতে আসেন। তাকে জীবন নাশের হুমকী দিয়ে ৫ লাখ টাকা চাঁদাদাবি করে।

চাঁদাবাজরা তুহিন সরদারকে জানায়, চাঁদার টাকা দিতে না পারলে তার ভাই হাবিব সরদারের ১ শতক জমি রাসেল পাটোয়ারীর নামে লিখে দিতে হবে। বাদি প্রতিবাদ করলে আসামীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তুহিন সরদারকে হত্যার হুমকী দিয়ে চাঁদা স্বরুপ ৫০ হাজার টাকা গ্রহন করে ও ১শ’ টাকার ৪টি নন জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর করে নেন। বাকী সাড়ে ৪লাখ টাকা ৭ ফেব্রুয়ারী সকাল ১০ টায় দিতে হবে বলে প্রাণ নাশের হুমকী দিয়ে চলে যায়। আসামীরা চলে যাওয়ার পর দু’টি মোবাইল নাম্বার থেকে তুহিন সরদারের মোবাইল ফোনে ফোন করে চাঁদার বাকী টাকা চেয়ে হুমকী দিতে থাকে। বাদী বিষয়টি স্থানীয় লোকজনের সাথে আলাপ আলোচনা করে জেলা ডিবি পুলিশের স্মরনাপন্ন হন।

ডিবি পুলিশের সহযোগীতায় মঙ্গলবার ৮ ফেব্রুয়ারী দুপুর ১২ টায় চাঁদাবাজরা প্রাইভেট কার (ঢাকা মেট্টো খ-১২-৯০৫৫) নিয়ে বাদির কথা মতো মুসলিম একাডেমীর সামনে আসে। তাদের বাকী দাবীকৃত চাঁদার সাড়ে ৪লাখ টাকা চাইলে তুহিন সরদার তার কাছ থেকে ৩০ হাজার টাকা দিয়ে চাঁদাবাজরা মারপিট করতে শুরু করলে আশ পাশে থাকা ডিবি’র একটি টিম চাঁদাবাজ চারজনকে গ্রেফতার করে।

চাঁদাবাজ ঝিরকগাছা উপজেলার পুরোন্দপুর (বিহারী পাড়া) জামাল উদ্দিনের ছেলে জাহিদ হাসান ওরফে রনি মোবাইল ফোনে বাদির সাথে কথা বলে প্রাইভেট কারের লোক পাঠানোর কথা বাদিকে জানায়। জাহিদ হাসান ওরফে রনি ও রাসেল পাটোয়ারীকে পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি। তবে এই ঘটনার সাথে উক্ত দু’জনসহ অজ্ঞাতনামা যারা রয়েছেন তাদেরকে পুলিশ খুঁজছে। তাদেরকে গ্রেফতার পূর্বক আইনে সোপর্দ করার কথা জানিয়েছেন ডিবি পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের বুধবার বিকেলে আদালতে সোপর্দ করে।