মধুখালীতে চারটি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন জেগে উঠেছে

0
60

সহিদুল ইসলাম, মধুখালী

রদপুরের মধুখালী উপজেলার চারটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন (৫ম ধাপের) আগামী ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের আর দুই দিন বাকি আছে। চারটি ইউনিয়নের আনাচে কানাচে এখন নির্বাচন নিয়ে মুখরিত ও গুঞ্জনরত। ইউনিয়নের রাস্তাা-ঘাটে, বাসে ভ্যানে, রিকসায়, ইজিবাইকে এমনকি মোড়ের দোকানপাঠ, চায়ের স্টল, বাজার। এমনকি নিজ নিজ বাড়িতে নির্বাচনের প্রার্থী নিয়ে আলোচনা হচ্ছে।

কে হচ্ছেন আগামী ৫ বছরের জন্য চেয়ারম্যান ও সদস্য এ নিয়ে চলছে চুল চেরা বিশ্লেষণ এবং ভোটের হিসাব নিকাশ। কে কত ভোট পাবে তাও নির্ধারন করা হচ্ছে চায়ের দোকানে বসে। আর প্রার্থীরা ও তাঁদের কর্মীরা ছুটছে বাড়ি বাড়ি। দিন পেরিয়ে খেয়ে না খেয়ে মনের আনন্দে তাদের ভক্তবৃন্দরা ও প্রার্থীরা গভীর রাত পর্যন্ত ভোটারদের বাড়িতে যাচ্ছে একটি ভোটের আশা নিয়ে বিজয়ের লক্ষে।

কামারখালী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছে তিন জন। আওয়ামীলীগ হতে মোঃ জাহিদুর রহমান বিশ্বাস বাবু, স্বতন্ত্র হতে মোঃ রাকিব হোসেন চৌধুরী ইরান, জাকির শেখ। এখানে নৌকার প্রার্থী মোঃ জাহিদুর রহমান বিশ্বাস (বাবু)’র সাথে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ রাকিব হোসেন চৌধুরী ইরানের প্রতিযোগিতা হবে বলে ভোটাররা নিশ্চিত করেছেন।

বাগাট ইউনিয়নে তিনজন চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছে। আওয়ামীলীগ হতে মতিয়ার রহমান খান, স্বতন্ত্র আঃ রহিম ফকির ও মোঃ ইউসুফ হোসেন মোল্যা। এখানে নৌকার প্রার্থী মোঃ মতিয়ার রহমান খানের সাথে স্বতন্ত্র প্রার্থী আঃ রহিম ফকিরের প্রতিযোগিতা হবে বলে ভোটারদের অভিমত।

উপজেলার জাহাপুর ইউনিয়নে রয়েছে চারজন চেয়ারম্যান প্রার্থী। আওয়ামীলীগ হতে সামছুল ইসলাম বাচ্চু, স্বতন্ত্র আজাদ রহমান, মোল্যা ইসহাক, শহিদুল্লাহ ।

এখানে ত্রিমুখী লড়াই হবে বলে একাধিক ভোটাররা জানিয়েছে। রায়পুর ইউনিয়নে চারজন চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছে। আওয়ামীলীগ হতে বর্তমান চেয়ারম্যান মোতালেব হোসেন মৃধা, স্বতন্ত্র জাকির হোসেন মিয়া, মামুন খান, সিরাজুল ইসলাম। এদের মধ্যে নৌকার প্রার্থী মোতালেব হোসেন মৃধার সাথে স্বতন্ত্র প্রার্থী জাকির হোসেন মিয়ার প্রতিদ্বন্ধিতা হবে বলে ভোটারদের ধারনা।

এছাড়া ৪ ইউনিয়নে সংরক্ষিত মহিল প্রার্থী রয়েছে ৪৪ জন এবং সাধারন আসনে সদস্য রয়েছেন ১শত ৩৪ জন প্রার্থী। এদিকে নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ করতে প্রশাসন কাজ করছে বলে জানিয়েছে উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্ণিং অফিসার রাসেদুল ইসলাম।