যশোরে কাকন খুনের ঘটনায় অজ্ঞাতনামা আসামী উল্লেখ করে মায়ের মামলা

0
19

বিশেষ প্রতিনিধি

যশোরে দুর্বৃত্তদের ছুরি কাঘাতে তাঁতী লীগের নেতা আব্দুর রহমান কাকন (৩৫) খুনের ঘটনায় বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) রাতে নিহতর মা সুফিয়া বেগম বাদি হয়ে কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা করেছেন। মামলায় আসামী করা হয়েছে অজ্ঞাতনামা আসামী ও আসামীরা।

যশোর শহরের কাজীপাড়া বিপুল টেইলার্সের সামনে মৃত তোরাব আলী হাওলাদারের মেয়ে ও মৃত আব্দুল হামিদ মৃধার স্ত্রী সুফিয়া বেগম মামলায় উল্লেখ করেন, তার ছেলে আব্দুর রহমান কাকন শহরের পূর্ব বারান্দী মোল্যাপাড়া কবর স্থানের পাশে জনৈক হানিফের বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করার পাশাপাশি মাছের ঘেরের ব্যবসা করতো।

গত ১৭ নভেম্বর বিকেল সাড়ে ৪ টায় আব্দুর রহমান কাকন বাড়ি হতে ব্যবসার কাজে যাবে বলে বাহির হয়। বাদি এশার নামাজ পড়ে বর্তমান ঠিকানায় ঘরে বসে ইবাদত বন্দেগী শেষে ঘরে ছিলো। ওই দিন দিবাগত রাত ১০ টা ৪১ মিনিটের সময় কাকনের স্ত্রী শারমিন আক্তার মোবাইলে বাদিকে জানান, কাকনকে অজ্ঞাতনামা আসামীরা পুর্ব বারান্দীপাড়া মোল্যাপাড়া কবরস্থানের পাশে নারায়ন এর চায়ের দোকানের ভিতর এলোপাতাড়ী মারপিটসহ বুকের বাম পাশে ধারালো ছুরি দিয়ে উপর্যূপরি আঘাত করে গভীর ক্ষত জখম করে রাস্তায় ফেলে পালিয়ে যায়।

স্থানীয় লোকজন কাকনকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে সেখানে রাত ১১ টায় কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষনা করে। এ ঘটনায় কোতয়ালি মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করার পর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আব্দুর রহমান হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত কাউকে সনাক্ত করতে পারেনি।