চৌগাছা রগাছিরা খেজুর গাছ প্রস্তুতে ব্যস্ত সময় পার করছে

0
66

শ্যামল দত্ত, চৌগাছা

যশোরের ঐতিয্য বাহী খেজুরের গুড় ও পাটালী। খেজুর গাছিরা গাছ থেকে রসসংগ্রহ করার জন্য ব্যস্ত সময় পার করছে। প্রকৃতির পালা বাদলে আসন্ন শীত মৌসুম। প্রভাতে শিশিরে ভেজা ঘাস আর সমান্য কুয়াশার আবারণ জানায় দিচেছ শীতের আগামী বার্তা। কথায় কথায় আছে যশোরের যশ খেজুরের রস। তাই শিতের মৌসুম শুরু হতে না হতেই গাছ থেকে রন সংগ্রহের পূর্ব প্রস্তুতি শুরু করছে চৌগাছা বিভিন্ন ইউনিয়সের গ্রাম গঞ্জ গাছিরা।

এরই মাঝে গাছিরা ব্যস্ত হয়ে খেজুর গাছ কাটা শুরু করেছে। রস সংগ্রহ পূর্ব প্রস্তুত হিসাবে এখন খেজুর গাছের মাথায় বিশেষ পদ্ধিতিতে কাটা বা চাচ দেওয়া কাজ শুরু করছে। এক সপ্তাহ পর নোলন স্থাপনের মাধ্যামে শুরু হবে সুশ্বাাদু খেজুর রস সংগ্রহের মুলকাজ। তার কিছুদিনের পর গাছেলাগানো হবে মাটির পাতিল(ভাড়) সংগ্রহ করা হবে মিষ্টি স্বাদের খেজুরের রস। তা দিয়ে তৈরী হবে লোভনীয় গুড় পাটালী উপজেলায় খেজুর গাছ আছে নারায়নপুর ইউনিয়ন, স্বরপদাহ ইউনিয়ন, হাকিমপুর ইউনিয়ন, সুখপুকুরিয়া ইউনিয়ন, ধুলিয়ানি ইউনিয়ন, পাশাপোল ইউনিয়ন, জগদীশপুর ইউনিয়ন, চৌগাছা ইউনিয়ন সহ ফুলসারা ইউনিয়ন সহেদপুর, কুটালিপুর, রায়নগর, তেতুলবাড়িয়া ও দূগৃাপুর গ্রামে চোখে পরে খেজুর গাছের বিশাল সমারোহ।

এই মৌসুমী খেজুরের রস দিদেই শিতের আমেজ শুরু। শিতের সকালে সবচেয়ে বড় আকার্ষণ দিনের শুরুতে রস ও মুড়ি দিয়ে ভিজিয়ে খেতে খুবই মজা লাগে। গ্রাম অঞ্চলে বাড়িতে বাড়িতে খেজুরের রস দিয়ে পরিবারের মা চাচী ও বাড়ীর বৌমারা রসের সুস্বাদু পিঠা তৈরী করে পরিবশন করেন। অনেক গাছি মৌসুমী সমায় খেজুর রস ও গুড় পাটালী বিক্রয় করে সংসার জিবীকা সংগ্রহ করেন। গ্রাম অঞ্চলে খেজুরগাছিরা উপজেলা হাট বাজারে গুড় ও পাটালীবিক্রয় করেন। েেচৗগাছার গুড় পাটালী ব্যাপক চাহিদা নিজেদের চাইদা মিটিয়ে রাজধানী সহ দেশের বিভিন্ন জেলায় ব্যবসায়ীরা গুড় পাটালী বানিজ্যিক ভাবে সংগ্রহ করে থাকেন।