যশোরে জাল কাবিননামায় বিয়ে দেখিয়ে তিন বছর ধরে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

0
72

বিশেষ প্রতিনিধি

যশোরে এক গৃহবধুকে জাল কাবিন দেখিয়ে বিয়ে করে প্রায় তিন বছর ধরে ধর্ষণের অভিযোগে যশোর আদালতে মামলা হয়েছে। ৩ নভেম্বর বুধবার ঝিকরগাছা উপজেলার মহেশপুর গ্রামের নুর ইসলামের মেয়ে রেবেকা সুলতানা পারভীন ওরফে রেবেকা খাতুন বাদী হয়ে এ মামলা করেন। মামলায় আসামি আনোয়ার হোসেন মিন্টু বগুড়া জেলার গন্ড গ্রামের মতিন চৌধুরীর ছেলে। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক নিলুফার শিরীন অভিযোগ আমলে নিয়ে সিআইডি যশোর জোনকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলায় বাদী উল্লেখ করেন, ২০১৩ সালের আসামির সাথে বাদীর বিয়ে হয়। বিয়েরপর থেকেই বাদীকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতে থাকে। বাধ্য হয়ে ২০১৮ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারী মিন্টুকে তালাক দেয় বাদী। চারমাস পর পহেলা জুলাই মিন্টু বাদীর বাড়িতে এসে ক্ষমা চায়। বাদী বিশ্বাস করে মিন্টুকে ক্ষমা করে দেয়। পূনরায় বিয়ের নামে একটি নীল রঙের কাগজে সাক্ষর করিয়ে নেয়। এরপর ফের বাদীকে নিজের বাড়িতে নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এরপর থেকে মিন্টুর কাছে একাধিকবার কাবিন নামা চাইলে আজ না কাল বলে ঘুরাইতে থাকে। এক পর্যায় বাদী মিন্টুর সংসার ছেড়ে বাবার বাড়ি যশোরের ছিকরগাছাতে চলে আসে।

সর্বশেষ গত ২০ অক্টোবর আাসামি ঝিকরগাছায় বাদীর বাড়িতে আসে। এসময় বাদীীর পিতা তার কাছে কাবিন নামা চায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মিন্টু বাদীকে মারপিট করে। এবং সে স্বীকার করে তাদের বিয়ে হয়নি। প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে বিবাহবহির্ভূতভাবে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগে এ মামলা করেন।