শাঁখারীগাতী এম এল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সরকারি বই চুরি করে জনতার হাতে ধরা

0
79

মুক্ত খান, রূপদিয়া

যশোর সদর উপজেলার শাঁখারীগাতী এম এল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সরকারি বই কেজি দরে বিক্রি করার সময় জনতার রোসানলে পড়েন অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হারুন অর রশিদ। বিদ্যালয়ের নির্ধারিত শিক্ষার্থী সংখ্যা থেকেও শিক্ষার্থী সংখ্যা বেশি দেখিয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিস থেকে অতিরিক্ত বই আনা হয়। সেই বই পরবর্র্তীতে সুযোগ বুঝে কেজি দরে চুরি করে বিক্রয় করার সময় ধরা পড়ে জনতার হাতে।

এলাকাবাসী জানায় অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হারুন অর রশিদ, সহকারি প্রধান শিক্ষক শচী কিশর সচীন, অফিস সহকারি আকতার হোসেন ও পিয়ন জামান হোসেন এই চারজনের যোকসজোকে আনুমানিক ৩০-৩৫ মন বই বিক্রি করে গোপালপুর গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে আব্দুল রাজ্জাকের নিটক। রাজ্জাক ইজিবাইক বোঝাই করে নেওয়ার পথে ওই এলাকার নিজাম নামের এক ব্যক্তি দেখতে পেয়ে পতিমধ্যে তার গাড়ি আটকায় এবং আশপাশের লোকজনকে জানায়।

পরে লোকজন এসে বিষয়টি সরেজমিনে দেখে বিদ্যালয়ে যেয়ে বিষয়টির সম্পর্কে প্রধান শিক্ষকের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ম্যানেজিং কমিটির সভায় বই বিক্রির ব্যাপারে অবগত আছেন। তাছাড়া এই বই বিক্রি করা বেআইনী কিনা তা আমার জানা নাই। তবে গত ৭-৮ বছর ধরে এভাবে বিক্রি করা হচ্ছে কোন সমস্যা হয়নি।

অপরদিকে বিদ্যালয়ের কার্যনির্বাহির সভাপতি আব্দুল মান্নান জানান, বই বিক্রয়ের বিষয়টি আমরা কমিটির কেউ কিছু জানি না।

এলাকাবাসী আরো জানান, এই চারজনের বিরুদ্ধে আরো অনেক অভিযোগ আছে এই বিদ্যালয়ের।

বই বিক্রয় এর বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কামরুজ্জামান জাহাঙ্গীর জানান, আমাদের বা সরকারের এই বই বিক্রয়ের কোন অনুমোদন নাই। যদি কেউ করে থাকে তাহলে যে ব্যাক্তিগত ভাবে অপরাধি। বিষয়টি আমার নলেজে এসেছে আমি সুষ্ঠ তদন্ত পূর্বক এর ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

অন্যদিকে এলাকাবাসী প্রতিষ্ঠানের বই চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এলাকাবাসী সংস্লিষ্ঠ কর্মকর্তার নিকট সুষ্ঠ বিচার দাবি করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here