বাঘারপাড়ায় দলীয় দ্বিধাদ্বন্দ্বে শোকের মাসেও পৃথকভাবে জাতীয় শোক দিবস পালিত

0
115

বসুন্দিয়া প্রতিনিধি

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের দ্বিধাদ্বন্দ্ব, মতভেদ এখন গ্রাম পর্যায়ে ছড়িয়ে পড়ছে। আগষ্ট শোকের মাসে, “১৫ আগষ্ট জাতীয় দিবস” দিনটিকে কেন্দ্র করে সারা দেশে মাস ব্যাপি নানা কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। এবছর করোনা মহামারির পরিস্থিতিতে স্বল্প পরিসরে উদযাপন করা হচ্ছে।

তবে দলীয় কোন্দল, ক্ষোভ, দ্বিধাদ্বন্দ্ব, মতভেদ কমছে না। এই মতভেদের পরিপেক্ষিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬ তম শাহাদত বার্ষিকীতে পৃথক পৃথকভাবে আলোচনা সভা, দোয়া, দুস্ত অসহায়দের মাঝে বিশেষ খাবার বিতরন সহ নানা কর্মসূচি পালন করেছে।

১৫ রোববার বাঘারপাড়া উপজেলা পর্যায়েও আলাদা আলাদা ভাবে “জাতিয় শোক দিবস” উদযাপন করা হয়।

এদিকে ইউনিয়ন পর্যায়েও একই অবস্থা লক্ষনীয়। ১৬ আগষ্ট সোমবার আ. লীগের এক অংশ জামদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ে শোক দিবসের উপর আলোচনা সভা, দোয়া কামনা করে অনুষ্ঠান করেছে। আবার অন্য অংশ একই দিনে পরিষদের পাশেই ভিটাবল্যা বাজারে উদযাপন করেছে। ইউনিয়ন পরিষদে বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা মশিউর রহমান ও ইউনিয়ন আ.লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি জামির হোসেনের নেতৃত্বে। এসময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হক মোল্যা, সাবেক শিক্ষক আঃ মজিদ মোল্যা, জিয়াউর রহমান, শরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

পরিষদের অপরপ্রান্তে ৭ নং ওয়ার্ডের সভাপতি ইকবাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতির জনকের ৪৬ তম শাহাদত বার্ষিকী পালন করেছে। এবং করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতিতে স্বল্প পরিসরে স্বাস্থ্য বিধি মেনে আলোচনা সভা দোয়া সহ বিশেষ খাবার বিতরন করেন। উভয় পক্ষের দলীয় নেতৃবৃন্দের একই বক্তব্য উঠে আসে, দলীয় ভেদাভেদ ভুলে সকলে এক মঞ্চে দিবস গুলো পালন করতে পারলে আস্তে আস্তে দলের কর্মসূচি শক্ত হবে। এবং জনসম্মুখে সমালোচনার পাত্র হবো না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here