শার্শায় ৩৩৩ নম্বরে ফোন দিয়ে সপ্তাহে ৫ শতাধিক পরিবার পাচ্ছে খাদ্য সহায়তা

0
77

বেনাপোল প্রতিনিধি

করোনা মহামারি দুর্যোগে কাজ না থাকায় ঘরবন্দী মানুষ অসহায় হয়ে পড়েছে। অনেকে লজ্জ্বায় সাহয্যও চাইতে পারছে না। এমনি সময় এসব মানুষের অসহায়ত্বর কথা ভেবে সরকার খাদ্য সহায়তা দেওয়ার জন্য ৩৩৩ নম্বরটি প্রচার করায় অনেকে সহায়তা পাচ্ছে। এ নাম্বারে ফোন করলে খাদ্যকষ্টে থাকলে তাকে খাদ্য সহয়তা দেওয়া হচ্ছে। আর এদের এনআইডি কার্ড নিয়ে এ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। সপ্তাহে শার্শা থানা এলাকায় প্রায় ৫ শতাধিক খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

সোমবার সরেজমিনে শার্শা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) অফিসের সামনে দেখা গেছে প্রায় ৭৫ জনকে ৩৩৩ নাম্বরে ফোন দেওয়া উপকারভোগীকে ১০ কেজি চাউল, ৫ কেজি আটা, দুই লিটার তেল, ১ কেজি ডাল ও ১ কেজি লবন দেওয়া হচ্ছে স্বাস্থ্য বিধি মেনে।

শার্শার মহিদুল ইসলাম, স্বরুপদাহ গ্রামের খোদেজা বেগম, মনোয়ারা বেগম বলেন, করোনার মধ্যে কোন কাজ নেই। লজ্জায় কারো কাছে হাত পাততে পারছি না। তাই সরকারের ৩৩৩ নম্বরে ফোন দিয়ে আজ আমরা এ সহায়তা পেয়েছি।

কার্শা উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা লাল্টু মিয়া বলেন, যারা ৩৩৩ নাম্বারে ফোন করছে তাদের তালিকা তৈরী করা হচ্ছে । তবে সামাজিক ভাবে এরা যাতে হেয় প্রতিপন্ন না হয় তার জন্য পরিচয় গোপন করা হচ্ছে। প্রতিদিন ৫০ থেকে ১০০ জনকে সরকারের এ ত্রান সামগ্রী দেওয়া হচ্ছে।

উপজেলা সহকারী কমশিনার (ভুমি) রাসনা শারমীন মিথিলা বলেন, যারা ফোন দিয়ে এ সহায়তা নিচ্ছে তাদের ডাটাবেজ ও তালিকা তৈরী করা হচ্ছে। একজন উপকারভোগী যাতে বার বার এ সাহায্য নিতে না পারে তার জন্য এ ডাটাবেজ। এরা জাতিয় পরিচয়পত্র দিয়ে সরকারের দেওয়া এ ত্রান সামগ্রী নিবে। তবে তাদের পরিচয় গোপন রাখা হবে। প্রতি সপ্তাহে এ তালিকায় ৫ শতাধিক এর মত পরিবার এ সহায়তা নিচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here