ভারতে কৃষক আন্দোলনে একাট্টা বিরোধীরা

0
81

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

কৃষি আইনের বিরুদ্ধে দিল্লির যন্তর-মন্তরে আন্দোলন করছেন কৃষকরা। শুক্রবার সকালেই কৃষকদের পাশে থাকার বার্তা দিয়েছে তৃণমূল। এবার রাহুল গান্ধীসহ বিরোধী দলের নেতারা যোগ দিলেন কৃষক আন্দোলনে। যদিও বিরোধীদের সঙ্গে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন না তৃণমূল, বিএসপি এবং এএপির নেতারা। এ দিকে ত্রিপুরায় ভোটের খেলা শুরু হতেই আসরে যোগ দিয়েছে কংগ্রেস। অভিষেকের সফরের পরই ত্রিপুরায় তৎপর কংগ্রেস। খবর এনডিটিভির।

শুক্রবার যন্তর-মন্তরে আন্দোলনরত কৃষকদের সঙ্গে দেখা করেন দোলা সেন, প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অপরূপা পোদ্দার। দোলা সেন বলেন, সেপ্টেম্বরে ফের দিল্লি সফর করতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সে সময় দিল্লির কনস্টিটিউশন কাবে বিরোধীদের নিয়ে একটি বৈঠকও করতে পারেন তিনি। এছাড়াও গাজীপুরসহ দেশের যে প্রান্তেই কৃষক আন্দোলন হচ্ছে, সেখানে গিয়ে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে দেখা করতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন কৃষকদের জন্য উত্তরীয়ও পাঠান বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।

কিছু দিন আগেই তৃণমূল, এনসিপি, শিবসেনা, সিপিএম, সিপিআই, আরএসপির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন রাহুল গান্ধী। যদিও সে বৈঠকে যোগ দেয়নি আম আদমি পার্টি।

পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে দিল্লির সাউথ অ্যাভিনিউর দলীয় কার্যালয় থেকে তৃণমূলের কয়েকজন সাংসদ সাইকেল চালিয়ে সংসদে যান। পেগাসাস, কৃষি আইনসহ একগুচ্ছ ইস্যুতে কেন্দ্র সরকারের সমালোচনায় সুর চড়াতে চেয়েছে বিরোধীরা। পাশাপাশি পেট্রোল-ডিজেলের মূল্য বৃদ্ধি নিয়েও সরব তৃণমূল, কংগ্রেসসহ অন্য দলগুলো। এই পরিস্থিতিতে কৃষক আন্দোলনে বিরোধীদের যোগদান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

এর আগে ট্রাক্টর চালিয়ে সংসদ অধিবেশনে গিয়েছিলেন রাহুল। কৃষক আন্দোলনের প্রতি সংহতি জানাতেই তার এই কর্মসূচি বলে জানিয়েছিলেন কংগ্রেস সাংসদ। একই সঙ্গে কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবি তুলেছিলেন রাহুল। তিনি বলেছিলেন, সংসদে আমি কৃষকদের প্রতিনিধি হয়ে এসেছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here