বসুন্দিয়া ও বাঘারপাড়া এলাকায় নিঃস্বার্থে করোনার রুগীর পাশে কয়েকটি সংগঠন

0
36

এস. এম মুসতাইন, বসুন্দিয়া

সারা দেশে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় ঈদের পর আরো কঠোর লকডাউন, গ্রামে গ্রামে ছড়িয়ে পড়ছে করোনার দাপট, সরকারি বেসরকারি হাসপাতাল গুলোতে বসার জায়গাও মিলছে না। ডাক্তাররা হিমসিম খাচ্ছে রুগীর সেবা দিতে। দেশের ভয়াবহ অবস্থা মোকাবেলা করতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে একাধিক সেচ্ছাসেবী সংগঠন এগিয়ে এসেছে করোনা রুগীদের পাশে। বিনামূল্যে অক্সিজেন, মূখের মাক্স, স্যানিটাইজার সামগ্রী, প্রাথমিক চিকিৎসার ওষুধ বিতরন, সেচ্ছায় করোনা রুগীদের হাসপাতালে পৌঁছে দেয়া এবং গরীব অসহায়দেরও নগত অর্থ সহ ত্রাণ দেয়ার কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।

বাঘারপাড়া ও বসুন্দিয়া এলাকায় কাজ করছে তরুন, যুবক সহ সচেতন মহল। এমনই কয়েকটি সংগঠনের কার্যক্রমে সন্তুষ্টি সাধারন মানুষ।

তার মধ্যে রয়েছে “মৈত্রী মানবিক সহায়ক কমিটি”, “পাশে আছি আমরা”, “নিঃস্বার্থ সেচ্ছাসেবী সংগঠন” এছাড়াও রয়েছে অনেক সেচ্ছাসেবক দল। জ্বর, কাশি, শ্বাসকষ্ট জনীত রুগীর প্রাথমিক পরীক্ষা নিরিক্ষার ব্যবস্থাও করা হচ্ছে বলে অনেকে বলেন। জরুরি অবস্থার রুগীদের দ্রুত হাসপাতালে পাঠানোর কাজও করছে। প্রত্যান্ত গ্রাম অঞ্চলে খবর পেলে তারা ছুটে যাচ্ছেন।

বসুন্দিয়া এলাকায় “মৈত্রী মানবিক সহায়ক কমিটি” ও “পাশে আছি আমরা” সংগঠনের কর্মীরা গরীব অসহায় মানুষের মাঝে নগত অর্থ, খাদ্য ত্রান সামগ্রী বিতরনে পিছে পড়ছে না। কথা হয় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির যশোর জেলা কমিটির সদস্য, বসুন্দিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ইউপি সদস্য কমরেড মিজানুর রহমান, বাঘারপাড়া উপজেলার থানা কমিটির অন্যতম সদস্য কমরেড আব্দুর সবুর মোল্যা, কমরেড টুকু ফারাজীর সাথে আলাপকালে তারা জানান, “মৈত্রী মানবিক সহায়ক কমিটির” উদ্যোগে করোনা রুগীদের বিনামূল্যে অক্সিজেনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। সেই সাথে যাদের মুখে মাক্স নেই তাদেরকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার পরামর্শ ও সুস্থ থাকার জন্য সচেতন করাসহ মাক্স বিতরন করা হচ্ছে। আবার নিম্ন আয়ের অসহায় মানুষের পাশে এসে নগত অর্থ, ত্রান সামগ্রী দেওয়ার কার্যক্রম চলছে।

কথা হয় বসুন্দিয়া মোড়ের একঝাক যুবক দিন রাত ছুটে চলছে “পাশে আছি আমরা” সংগঠনের কয়েকজন তাইফুর রহমান বাবু, উৎস, রায়হান, তমাল, আবির তারা জানায় বসুন্দিয়া ইউনিয়নের আশপাশে যে গ্রামে অসুস্থ করোনার লক্ষন জাতীয় রুগীর খবর পেলে আমরা ছুটে গিয়ে বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা ও জরুরি চিকিৎসার জন্য নিঃস্বার্থে হাসপাতালে পৌঁছে দেয়ার জন্য দৃঢ় চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

কথা হয় বাঘারপাড়া উপজেলার জামদিয়া ইউনিয়নের এগারোখান “নিঃস্বার্থ সেচ্ছাসেবী দল” গোটা এগারোখান অঞ্চলে একদল যুবক জীবন বাজী রেখে এগিয়ে এসেছে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন রোধে বিনামূল্যে অক্সিজেন, প্রাথমিক চিকিৎসা, মাক্স বিতরন জনসচেতনতা মুলক সভা চালিয়ে যাচ্ছেন। আবার জরুরি অবস্থার রুগীকে অক্সিজেন দিয়ে দ্রুত হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য কয়েকজন ডাক্তার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। দেশে চলছে কঠোর লকডাউন সবারই স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা, অপ্রয়োজনে রাস্তায় বের হওয়া থেকে বিরত রাখতে হবে, “ঘরে থাকুন, পরিবার নিয়ে সুস্থ থাকুন” এমন প্রত্যাশা সচেতন মহলের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here