আশাশুনিতে অসহায় পরিবারের সম্পত্তিতে ঘর নির্মাণ চেষ্টার অভিযোগ

0
33

আশাশুনি প্রতিনিধি

আশাশুনি উপজেলার কাদাকাটি ইউনিয়নের ঝিকরায় এক অসহায় পরিবারের পৈত্রিক সম্পত্তিতে পাকা ঘর নির্মাণ চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঐ গ্রামের মৃত ফুলচাঁদ সরকারের পুত্র গোপাল সরকার কর্তৃক থানায় লিখিত অভিযোগসূত্রে জানাগেছে, উপজেলার কাদাকাটি ইউনিয়নের ঝিকরা মৌজায় আরএস ১০৬ নং খতিয়ানে ১৫, ১৭১, ১৮০ ও ১৮২ দাগে মোট ১.৬১ একর সম্পত্তি পিতার মৃতান্তে গোপাল সরকারসহ তাদের ৩ ভাইয়ের পাওনা ও ভোগ দখলে রয়েছে।

সম্প্রতি ওই সব দাগের মধ্যে শরিকদার পার্শ্ববর্তী করচাখালী গ্রামের রামাকান্ত সরকার, নিশিকান্ত সরকার ও ডাঃ শ্রীপালি সরকার ছলচাতুরি করে গোপাল গংদের অজান্তে তাদের পাওনার অতিরিক্ত রেকর্ড করেছেন। এ নিয়ে কয়েকবার উভয় পক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটি জেরে প্রতিপক্ষরা গোপালের মাতা বিমলা সরকারকে মারপিট করেছেন।

অবশেষে সম্প্রতি গোপালদের পাওনা মেইন রাস্তা সংলগ্ন পৈত্রিক সম্পত্তিতে প্রতিপক্ষ রামাকান্ত সরকার পাকা ঘর নির্মান শুরু করে। এতে গোপাল গংরা বাঁধা সৃষ্টি করলে রামাকান্ত গংরা হুমকি ধামকি দিয়ে জোর পূর্বক পাকা ঘর নির্মাণ কাজ করার চেষ্টা করে চলেছে।

এ ব্যাপারে গোপাল সরকার জমি মাপ জরিপান্তে প্রতিপক্ষ পাকা ঘর নির্মানের দাবীতে আশাশুনি থানা অফিসার ইনচার্জ বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। উভয় পক্ষের মধ্যে আলোচনান্তে আইন শৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে সার্ভেয়ার বিজন কুমারের মাধ্যমে উভয় পক্ষের উপস্থিতিতে মাপ জরিপও সম্পন্ন হয়েছে। মাপে গোপাল সরকারদের প্রতিপক্ষ রামাকান্ত গংদের শরিকাংশে দখলে থাকা ৮ শতক জমি পাওনা হয়। সে জমি ফেরত না দিয়ে ঘর নির্মাণ চেষ্টার অভিযোগ করেন গোপাল গংরা। অসহায় গোপালের পরিবার তাদের পাওনা জমি বুঝিয়ে দিয়ে পাকা ঘর নির্মাণ করুক এমন দাবী জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে রামাকান্তর সাথে এ কথা হলে তিনি জানান, আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, মিমাংশা না হওয়া পর্যন্ত ঘর নির্মাণের কাজ বন্ধ রেখেছি। জোর করে ঘর নির্মাণের প্রশ্নই আসেনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here