আশাশুনির টুকরো সংবাদ

0
45

আশাশুনি প্রতিনিধি

মোবাইল কোর্টে জরিমানা

আশাশুনিতে করোনা ভাইরাসের ২য় ঢেউ এর হাত থেকে জনগণকে রক্ষার লক্ষ্যে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ৩ জনকে ২৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

শুক্রবার উপজেলার বিভিন্ন স্থানে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এর নির্দেশে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট শাহীন সুলতানা এ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে স্বাস্থ্য বিধি অমান্য করায় সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) ২০১৮ আইনের ২৪ ধারায় বুড়িয়া গ্রামের বিমল কৃষ্ণ মন্ডরের পুত্র জয় প্রকাশকে ৩০০ টাকা, কমলাপুর গ্রামের আ. সামাদ গাজীর পুত্র নজরুল ইসলামকে ২০০ টাকা ও গোয়ালডাঙ্গা বাজারের ডিজিটাল ফ্যাশান এর স্বত্ত্বাধিকারী রবিউল ইসলামকে ২০০০ টাকা, সর্বমোট ২ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

এছাড়া তেতুলিয়া বাজার, গোয়ালডাঙ্গা বাজার, বড়দল ব্রীজ চেকপোষ্ট এবং বিভিন্ন সড়ক ও বাজারে টহল ও অভিযান পরিচালনা করা হয়। সাথে সাথে ভবিষ্যতে স্বাস্থ্য বিধি অমান্য না করার জন্য ব্যবসায়ী ও জনসাধারণকে সচেনতন করা হয়।

মৎস্য ঘেরে বিষ দিয়ে ৩ লক্ষাধিক টাকার মাছ নিধন

আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের নওয়াপাড়া গ্রামে মৎস্য ঘেরে বিষ প্রয়োগ করে ৩ লক্ষাধিক টাকার মাছ নিধনের ঘটনা ঘটেছে।

জানাগেছে, নওয়াপাড়া গ্রামের ইউপি সদস্য রবিউল ইসলাম নওয়াপাড়া বিলে ৩৫ বিঘা জমি কয়েক খন্ড করে চালাই মাছের চাষ করে থাকেন। দীর্ঘ ৪ বছর ধরে তিনি মাছ চাষ করে আসছেন। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় কে বা কারা শত্রুতামূলক ভাবে ঘেরে বিষ প্রয়োগ করলে মাছ মরতে শুরু করে।

শুক্রবার ভোরে মাছ বিক্রয়ের জন্য জাল আসলে ঘেরে গিয়ে দেখে বহু মাছ মরে ভাসছে এবং বাকী মাছ বিষক্রিয়ায় ছটফট করছে। দ্রুত জাল টেনে কিছু মাছ বাজারে নিয়ে গেলে পানির দামে বিক্রয় করতে হয়। বিষক্রিয়ায় অনুমান ৬০ মন মাছ মারা গেছে। যার মূল্য ৩ লক্ষাধিক টাকা।

উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে আরও দু’বার একই ভাবে বিষ প্রয়োগ করে ঘেরের মাছ নিধন করা হয়েছিল। একের পর এক বিষদিয়ে মাছ নিধনের ঘটনায় ঘের মালিক বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন। এব্যাপারে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

মন্দিরের তালা ভেঙ্গে মূর্তি চুরি

আশাশুনি উপজেলার খাজরা ইউনিয়নে মন্দিরের তালা ভেঙ্গে দু’টি মূল্যবান ধাতবে তৈরি মূর্তি চুরির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনা ঘটেছে বৃহস্পতিবার খাজরা ইউনিয়নের কাপসন্ডা গ্রামে।

জানাগেছে, কাপসন্ডা সার্বজনিন জগদ্ধাত্রী মন্দিরে বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টার দিকে পুরোহিত কারুনা কান্তি ব্যানার্জী পূজা দিয়ে মন্দিরের গ্রীলে তালা আটকে মন্দির বন্ধ করে দেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে মন্দির কমিটির সভাপতি কৃষ্ণ মোহন ব্যানার্জীর কন্যা ঋতু ব্যানার্জী মন্দিরে সন্ধ্যা প্রদীপ দিতে গিয়ে দেখে দরজার তালা ভাঙ্গা।

তখন অন্যরা সেখানে গিয়ে দেখে মন্দিরের মধ্যে থাকা মূর্তিগুলোর মধ্যে ২০০ বছরের পুরাতন পাথরের তৈরি নারায়ন মূর্তি ও পিতলের তৈরি কৃষ্ণ মূর্তি নেই। মূর্তি দু’টির আনুমানিক মূল্য এক লক্ষ টাকা।

এব্যাপারে মন্দির কমিটির সভাপতি কৃষ্ণ মোহন ব্যানার্জী বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ গোলাম কবির জানান, মূর্তি চুরির অভিযোগ পেয়েছি, একজন দারোগাকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রতিবন্ধী তরুনীর আত্মহত্যা

আশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউনিয়নের ফকরাবাদে এক প্রতিবন্ধী তরুনী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে এ আত্মহত্যার ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, ফকরাবাদ গ্রামের বলাই সরকারের মেয়ে প্রতিবন্ধী বিথীকা সরকার (১৭) তার বাবাকে র্টাস মোবাইল ফোন কিনে দিতে বলে। বাবা বলাই সরকারের সামর্থ না থাকায় মেয়ের আবদার রক্ষা করতে পারিনি।

এতে সে অভিমান করে ঘরে খাটে টুলের উপরে দাঁড়িয়ে খেজুরের কাঠের আড়ার সাথে গলায় ওড়না দিয়ে আত্মহত্যা করে। আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ গোলাম কবির বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এসআই জাহাঙ্গীর সেলিমকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছিলাম। র্টাস মোবাইল ফোন কিনে না দেওয়ায় অভিমানে প্রতিবন্ধী মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে।

সুরহতল রিপোর্ট শেষে পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ না থাকায় তাকে সৎকারের ব্যবস্থা করতে বলা হয়েছে।

কাদাকাটিতে নগদ অর্থ সহায়তা বিতরণ

আশাশুনি উপজেলার কাদাকাটি ইউনিয়নে করোনাভাইরাস এর কারনে লকডাউন ও প্রাকৃতিক দুর্যোগ ইয়াসের প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্থ ইজিবাইক চালক, ইঞ্জিন ভ্যান চালক ও হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে অর্থ সহায়তা বিতরণ করা হয়েছে।

শুক্রবার সকাল ১০ টার দিকে ইউনিয়ন পরিষদ হল রুমে এ নগদ সহায়তা বিতরণ কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করেন, কাদাকাটি ইউপি চেয়ারম্যান দীপঙ্কর কুমার সরকার দিপ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নগদ অর্থ সহায়তা ৪০০ পরিবারের মাঝে পরিবার প্রতি ৫০০ টাকা করে বিতরণকালে এসময় ইউপি সচিব মঞ্জুরুল ইসলাম, ইউপি সদস্য রমজান আলী মোড়ল, সঞ্জয় সরকার, হরেকৃষ্ণ মন্ডল, আবু হাসান বাবু, আইয়ূব আলী, গোলাম মোস্তফা ও গ্রাম পুলিশ উপস্থিত ছিলেন।

কুল্যা ইউপির সাবেক মেম্বার নুরুল ইসলাম এর মায়ের দাফন সম্পন্ন

আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড এর সাবেক মেম্বার ও আরার জামে মসজিদের সভাপতি নুরুল ইসলাম মালির মায়ের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকাল ৫ টায় তিনি ইন্তেকাল করেন। (ইন্নালিল্লাহি অইন্না ইলায়হি রাজেউন)। ইউনিয়নের আরার গ্রামের মরহুম আলহাজ্ব অজিয়ার রহমান মালীর স্ত্রী ছরিতন বিবি (৮৫) দীর্ঘদিন বার্ধক্য জনিত রোগে ভুগছিলেন। শুক্রবার সকাল ১০ নামাজে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে স্বামীর কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়। জানাযা নামাজে ইমামতি করেন আরার জামে মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ আমানুল্লাহ।

এসময় কুল্যা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাছেত আল হারুন চৌধুরী, সমাজসেবক এ কে এম ফজলুল হক, আওয়ামীলীগ নেতা ডা. গাউছুল হক ও এড. জিয়াউর রহমান, কুল্যা ইউপির চেয়ারম্যান প্রার্থী সাজ্জাদুল হক টিটুল ও এসএম ওমর ছাকি পলাশ, বড়দল ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি সোহরাব হোসেন, ইউপি সদস্য রমজান আলীসহ বহু হাজী, আলেম ও হাফেজ, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মুসল্লীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here