‘তুই হিন্দু এদেশে থাকার অধিকার নেই’

0
36

কপিলমুনি প্রতিনিধি

কপিলমুনি এক হিন্দু মৎস্য ব্যবসায়ীকে হত্যাসহ এদেশে থাকার অধিকার নেই বলে হুমকী দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভূক্তভোগী তার বৈধ ঘের দখল, মেরে বস্তা বন্দি, হিন্দু মানুষ হওয়ায় দেশে থাকার অধিকার নেই, এসব অভিযোগে স্থানীয় প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়রী হয়েছে।

থানার জিডিতে উল্লেখ করা হয়েছে উপজেলার নগরশ্রীরামপুর মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি লিঃ প্রায় এক যুগ কাশিমনগর মৌজায় নিজ রেকর্ডীয় জমি ও হারি এবং সরকারি বদ্ধ জলমহলটি ইজারা নিয়ে শান্তিপূর্ণ ভাবে মৎস্য চাষ করে আসছেন।

গত ৪জুলাই রাত অনুমান ১১টায় স্থানীয় মো. রবিউ ইসলাম গাজী ছেলে আব্দুর রাজ্জাক রাজু (৪২) সহ অজ্ঞাত ২-৩জন সমিতির সভাপতি রবীন্দ্রনাথ বিশ্বাসকে হুমকি দিয়ে বলেন, বদ্ধ জলমহলটি দখলচুত করবে, প্রয়োজনে মৎস্য চাষের স্থানে বাসা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়ে মেরে বস্তাবন্দি করে নদীতে ভাসিয়ে দিবে। আরো বলে তুই হিন্দু মানুষ এদেশে থাকার কোন অধিকার নেই।

মঙ্গলবার সরেজমিনে ঘটনা স্থলে গেলে স্থানীয় মানুষ জানান, রাজু নিজকে খুলনা-৬ এমপি লোক বলে পরিচয় দেন। এলাকায় তার বিরুদ্ধে একাধিক অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে বলে স্থানীয় কয়েকজন জানান। এমনকি রবিন্দ্রনাথের মৎস্য ঘেরের বাসা নিকট রাজু লোকজনকে বাসা নির্মাণ করতে দেখা যায়। স্থানীয়রা ধারনা করছেন যে কোনো সময় সহিংস ঘটনা ঘটতে পারে।

রবিন্দ্রনাথ জানান, গত ২২জুন মহামাহ্য হাইকোর্টের পিটিশন নং ৫৫৩৯/২০২১ এর আদেশ মোতাবেক বাংলা ১৪২৮ থেকে ১৪৩০সাল পর্যন্ত জলমহলের রাজস্ব এর টাকা জমা দেওয়ার আদেশ হয়েছে। সেই মোতাবেক ৩০জুন খুলনা জেলা প্রশাসক নিকট টাকা প্রদানের জন্য আবেদন করেছি। মৎস্য ঘেরটি পরিমান ২১একর ২৬শতক। রেকর্ডীয় নিজ ও হারিকৃত জমি ৬একর এবং বাকী সরকারি জলমহল।

তিনি আরো জানান, সে একজন প্রকৃত মৎস্যজীবী। ঘটনাস্থলে আব্দুর রাজ্জাক রাজুকে না পাওয়া যায় তার বক্তব্য নেওয়া যায়নি। এব্যাপারে পাইকগাছা থানায় জিডি নং-২১৫, ৫জুলাই। সকল ডকুমেন্ট ও ভুক্তভোগীর ভিডিও সাক্ষাৎকার আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here