ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান বন্ধ হলে বিপাকে পড়বে ৫০ লাখ পরিবার : বাম গণতান্ত্রিক জোট

0
110

সত্যপাঠ ডেস্ক

বাম গণতান্ত্রিক জোট কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের সভায় নেতৃবৃন্দ বলেছেন, তুঘলকি কায়দায় ব্যাটারি চালিত রিকশা-ভ্যান বন্ধ করা হলে ৫০ লক্ষ পরিবার জীবিকা হারিয়ে বুভুক্ষ অবস্থায় পড়বে। যা সমাজে চরম অস্থিরতা তৈরি করবে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই সিদ্ধান্ত এই মুহূর্তে বাতিলের দাবি জানান তারা।
মঙ্গলবার রাজধানীর তোপখানা রোডস্থ বাসদ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক বজলুর রশীদ ফিরোজ।

বক্তৃতা করেন সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম ও সহকারী সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক ও পলিটব্যুরো সদস্য আকবর খান, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনোয়েদ সাকি, সম্পাদক বাচ্চু ভুইয়া ও মনিরুদ্দিন পাপ্পু, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন নান্নু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, বাসদ (মার্কসবাদী)’র মানস নন্দী ও জহিরুল ইসলাম এবং সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের রুবেল সিকদার।

সভায় গৃহীত এক প্রস্তাবে সারাদেশে ব্যাটারি চালিত রিকশা, ভ্যান নিষিদ্ধের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ঘোষণায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে একই অমানবিক সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানান। প্রস্তাবে বলা হয়, করোনার এই মহামারীরকালে অসংখ্য মানুষ কাজ হারিয়ে বেকার হচ্ছে, আড়াই কোটি মানুষ নতুন করে দরিদ্র হয়েছে, ৬২ শতাংশ মানুষ আয়-রোজগার হারিয়েছে ৫২ শতাংশ মানুষ খাদ্য গ্রহণ কমিয়ে দিয়েছে। এই অবস্থায় ওই সিদ্ধান্ত নতুন সংকট তৈরি করবে।

প্রস্তাবে আরো বলা হয়, রিকশা, ব্যাটারি, মোটর আমদানি করে ব্যবসায়ীরা, বিক্রি করে দোকানদার ব্যবসায়ীরা, সেগুলো আমদানি ও বিক্রি বন্ধ না করে রিকশা নিষিদ্ধ অমানবিক। দরিদ্র কর্মহীন মানুষ এনজিওসহ বিভিন্নভাবে ঋণ নিয়ে ৬০ থেকে ৭০ হাজার টাকা খরচ করে রিকশা কিনে চালিয়ে যখন জীবিকা চালাচ্ছে তখন সরকারের এই সিদ্ধান্ত কোনক্রমেই শ্রমজীবী রিকশা চালক-মালিকরা মেনে নেবে না। বাম জোটের পক্ষ থেকে ব্যাটারি রিকশা-ভ্যান-ইজিবাইক সংগ্রাম পরিষদের আন্দোলনের প্রতি সর্বাত্মক সমর্থন জানানো হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশ : ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান নিষিদ্ধ ঘোষণার প্রতিবাদে আগামীকাল বুধবার বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশের কর্মসূচি পালন করবে রিকশা, ব্যাটারি রিকশা, ইজিবাইক চালক সংগ্রাম পরিষদ এবং রিকশা-ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন। পৃথক বিবৃতিতে সংগঠন দু’টির পক্ষ থেকে কর্মসূচী সফল করার আহ্বান জানানো হয়েছে। একই সঙ্গে অবিলম্বে বুয়েট প্রস্তাবিত রিকশাবডি, গতি নিয়ন্ত্রক, উন্নত ব্রেকসহ ব্যাটারিচালিত রিকশা রাস্তায় চলতে দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here