ফুলতলায় কঠোর লকডাউন চলছে, হাসপাতালে একজনের মৃত্যু

0
18

মঈন উদ্দিন, ফুলতলা

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারীর প্রাদূর্ভাব মোকাবেলায় খুলনা জেলা প্রশাসকের নির্দেশনা মোতাবেক ফুলতলা উপজেলায় ৭ দিনের কঠোর লকডাউনের মঙ্গলবার প্রথম দিনে ফুলতলা বাজারের আনুমানিক ৫ হাজার ব্যবসায়ীর মধ্যে নিত্য প্রয়োজনীয় দোকানপাট ছাড়া সকল দোকান উপজেলা প্রশাসন ও বাজার বণিক কল্যাণ সোসাইটির নেতৃবৃন্দের কঠোর তদারকিতে বন্ধ ছিলো।

তবে পথচারীদের এখানে সেখানে মাস্ক ব্যতিত চলাফেরা করতে দেখা যায়। ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে উপজেলার নতুনহাট এলাকায় একটি হোটেলে ১ হাজার টাকা জরিমানা ধার্য ও আদায় করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রট সাদিয়া আফরিন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. মিঠুন বাহাদুর জানান, গত সোমবার ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনজিজা রানী (৭০) নামের এক করোনা রোগির মৃত্যু ঘটেছে। সে বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট উপজেলার বাসিন্দা বলে জানা যায়।

হাসপাতালের রিপোর্ট অনুসারে মঙ্গলবার ৩৯ জনের কোভিড- ১৯ টেস্ট করা হয় যার মধ্যে ২০ জনের পজেটিভ ফলাফল আসে। উল্লেখিত ২০ জনের মধ্যে ১৫ বাড়ি ফুলতলা উপজেলায় এবং বাকি ৫ জনের বাড়ি অভয়নগর উপজেলায়।

এ পর্যন্ত ফুলতলা উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব আবুল কালাম ভূঁইয়া, জেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদকের মাতা কাজী হাসিনা বেগম, শিল্পপতি মিজানুর রহমান মোড়ল, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা আমীন সমিতির সভাপতি তুষার কান্তি সরকারসহ আরও বেশ কয়েকজন।

কোভিড- ১৯ আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন, থানার অফিসার ইনচার্জ মাহাতাব উদ্দিন, জেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. তারিক হাসান মিন্টু, ইউপি চেয়ারম্যান শরীফ মোহাম্মদ ভূঁইয়া শিপলুসহ শতাধিক ব্যক্তি। সুধীজনের ধারনা কতিপয় ব্যক্তির ভারত যাতায়াতের কারণে অত্র উপজেলায় করোনা সংক্রামণের হার অতি দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here