আশাশুনিতে লকডাউনের সপ্তম দিনে ওসির নেতৃত্বে চেকপোষ্ট বসিয়ে অভিযান

0
39

আশাশুনি প্রতিনিধি

করোনা সংক্রমণ রোধে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের আহবানে লকডাউন এর সপ্তম দিনে আশাশুনিতে বিভিন্ন স্থানে চেকপোষ্ট বসিয়ে আশাশুনি থানা পুলিশ মানুষকে ঘরে ফেরাতে অভিযান চালিয়েছে।

শুক্রবার সকাল থেকে আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ গোলাম কবির এর নেতৃত্বে উপজেলার বুধহাটা বাজার, কুল্যার মোড়, বড়দল ব্রীজ, কালীবাড়ী বাজার, দরগাহপুরসহ বিভিন্ন উপজেলা থেকে আশাশুনি উপজেলায় প্রবেশ পথে চেকপোষ্ট বসিয়ে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এসময় বাঁশ ও চেয়ার টেবিল এর মাধ্যমে বেরিকেড দিয়ে যানবাহন ও মানুষ চলাচল নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করে থানা পুলিশ। তবে বিশেষ জরুরি পরিসেবা এর আওতামুক্ত ছিল। এসময় থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ গোলাম কবির সবাইকে সরকারী নির্দেশনা বাস্তবায়নে সতর্ক হওয়ার নির্দেশনা প্রদান করেন এবং কাজ ছাড়া বিনা প্রয়োজনে বাইরে না আসার আহবান জানান। যদি কেউ বিনা প্রয়োজনে বাড়ির বাইরে আসেন তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে তিনি জানান। এসময় তিনি করোনা সংক্রমণ রোধে লকডাউন বাস্তবায়নে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

অভিযান পরিচালনাকালে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মাহফুজুর রহমান, এসআই জুয়েল রানা, এসআই গাজী নূর নবীসহ আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এদিকে, লকডাউন ভঙ্গ করে শুক্রবার সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজার ও মোড়ে মোড়ে সাধারণ মানুষের ভিড় দেখাগেছে।

দেখে মনে হয়েছে লকডাউন এ ঘরে থাকার কথা থাকলেও প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে কিছু অসচেতন জনগন বেশী বেশী বাহিরে বেরিয়ে হাট-বাজার ও মোড়ে মোড়ে আড্ডা দিয়ে উৎসব মূখর পরিবেশে লকডাউন পালন করেছেন।

এদিন স্থানীয় রুটে কোন বাস চলাচল করতে দেখা যায়নি। তবে ইজিবাইক, ব্যাটারিচালিত ভ্যান, ইঞ্জিন ভ্যান, মোটরসাইকেল প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে চলতে দেখাগেছে। এসময় অধিকাংশ মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি না মানা ও মাস্ক পরিধানে অনীহা ছিল। তবে লকডাউন সফল করতে প্রশাসনের তৎপরতা ছিল চোখে পড়ার মত। এদিকে, উপজেলার সচেতন মহল লকডাউন চলাকালে উপজেলা প্রশাসন এর তৎপরতা উপজেলা ব্যাপী আরও বৃদ্ধির দাবী জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here