যশোর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরজাহান ইসলাম নীরার ইন্তেকাল : শোক

0
119

সত্যপাঠ রিপোর্ট

প্রবীন মহিলা আওয়ামীলীগের নেত্রী যশোর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুর জাহান ইসলাম নিরার ইন্তেকাল (ইন্না লিল্লাহে ওয়াইন্নালিল্লাহে রাজেউন)।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ২৫ মিনিটের দিকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বিপুল ও যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আরিফ আহমেদ।

ডাক্তার আরিফ আহমেদ জানান, উপজেলা চেয়ারম্যান নুরজাহান ইসলাম নীরাকে বেলা ১১টার দিকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সেখানে বেলা ১১টা ২৫ মিনিটে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল প্রায় ৫৫ বছর। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নীরার মরদেহ যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেই ছিল।

এদিকে, নুরজাহান ইসলাম নীরার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার সাথে সাথে যশোরের রাজনৈতিক অঙ্গণে শোকের ছায়া নেমে আসে। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলনসহ তার দীর্ঘদিনের রাজনৈকিব সহকর্মীরা ছুটে যান হাসপাতালে। সেখানে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়।

নুরজাহান ইসলাম নীরা গত বছরের ২০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত যশোর সদর উপজেলা উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীকে বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি দীর্ঘদিন হার্ট জটিলতাসহ নানা রোগে ভুগছিলেন।

র্বাচনের দু’দিন আগে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে খুলনা ফোর্টিজে চিকিৎসা করানো হয়। নির্বাচনের পর তিনি ফের অসুস্থ হলে ঢাকায় হার্টে রিং পড়ানো হয়। বৃহস্পতিবার তিনি নিজের বাড়িতে আবার অসুস্থ হয়ে পড়লে পরিবারের সদস্যরা সাথে সাথে তাকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা কেয়ার ইউনিটে নিয়ে ভর্তি করেন। সেখানেই মাত্র ২৫ মিনিটের ব্যবধানে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন এই রাজনীতিক ও জনপ্রতিনিধি।

নুরজাহান ইসলাম নীরা দীর্ঘ ৪১ বছরেরও বেশি সময় ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। দীর্ঘ কয়েক বছর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এর আগে তিনি ছিলেন যশোর পৌরসভার কমিশনার। নুরজাহান ইসলাম নীরা যশোরের রাজপথের একজন লড়াকু সৈনিক হিসেবে পরিচিত। স্বৈরাচার, সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী আন্দোলনসহ যশোর উন্নয়নের যে কোনো আন্দোলনে তিনি ছিলেন অগ্রসৈনিক।

যবিপ্রবি উপাচার্যের শোক :

যশোর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান, যশোর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভানেত্রী ও বিশিষ্ট নারী নেত্রী নুরজাহান ইসলাম নীরার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন।

শোক বার্তায় অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন বলেন, নুরজাহান ইসলাম নীরা ছিলেন তৃণমূল থেকে উঠে আসা একজন ‘বলিষ্ঠ ও আইকনিক’ নারী নেত্রী। যবিপ্রবির উপাচার্য হিসেবে তাঁর সঙ্গে আমি অনেক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছি। যশোরের মানুষের কাছে তিনি অত্যন্ত সজ্জন মানুষ হিসেবে পরিচিত ছিলেন। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিশন-মিশন বাস্তবায়নে তিনি আজীবন কাজ করে গেছেন। তাঁর মৃত্যুতে যশোরবাসী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের একজন নিবেদিত প্রাণ রাজনীতিককে হারালো। আমি তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছি এবং তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি। একইসঙ্গে তাঁর পরিবার-পরিজন, রাজনৈতিক সহকর্মী, কর্মী-সমর্থকদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

এদিকে নুরজাহান ইসলাম নীরার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি, কর্মকর্তা সমিতি ও কর্মচারী সমিতি। একইসঙ্গে যবিপ্রবি ছাত্রলীগ, সাংবাদিক সমিতিসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনও তাঁর প্রয়াণে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছে।

ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বিপুলের শোক :

যশোর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি নুরজাহান ইসলাম নীরা আর নেই। ০৩ জুন বৃহস্পতিবার সকালে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন (ইন্না…রাজিউন)।

তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন যশোর সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বিপুল। একই সাথে তিনি শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

এক শোক বার্তায় তিনি বলেন, ‘আশির দশকে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত হওয়া নুরজাহান ইসলাম নীরা ছিলেন একজন জনদরদী নেত্রী। উপজেলা পরিষদে নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে তিনি সদর উপজেলাবাসীর জন্য নিরলসভাবে কাজ করছিলেন। তার মৃত্যুতে যশোর সদর উপজেলাবাসীর অপূরণীয় ক্ষতি হলো; যা পূরণীয় নয়।’

যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আনোয়ারের শোক

আফজাল হোসেন চাঁদ, ঝিকরগাছা : যশোরের প্রবীন মহিলা আওয়ামীলীগের নেত্রী যশোর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুর জাহান ইসলাম নিরার বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ২৫ মিনিটের দিকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন ( ইন্নালিল্লাহে ওয়াইন্নালিল্লাহে রাজেউন)। তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আনোয়ার হোসেন।

নুরজাহান ইসলাম নীরা দীর্ঘ ৪১ বছরেরও বেশি সময় ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। দীর্ঘ কয়েক বছর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এর আগে তিনি ছিলেন যশোর পৌরসভার কমিশনার। নুরজাহান ইসলাম নীরা যশোরের রাজপথের একজন লড়াকু সৈনিক হিসেবে পরিচিত। স্বৈরাচার, সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী আন্দোলনসহ যশোর উন্নয়নের যে কোনো আন্দোলনে তিনি ছিলেন অগ্রসৈনিক।

তিনি গত বছরের ২০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত যশোর সদর উপজেলা উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীকে বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি দীর্ঘদিন হার্ট জটিলতাসহ নানা রোগে ভুগছিলেন। নির্বাচনের দু’দিন আগে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে খুলনা ফোর্টিজে চিকিৎসা করানো হয়। নির্বাচনের পর তিনি ফের অসুস্থ হলে ঢাকায় হার্টে রিং পড়ানো হয়।

বৃহস্পতিবার তিনি নিজের বাড়িতে আবার অসুস্থ হয়ে পড়লে পরিবারের সদস্যরা সাথে সাথে তাকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা কেয়ার ইউনিটে নিয়ে ভর্তি হয়। সেখানেই মাত্র ২৫ মিনিটের ব্যবধানে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন এই রাজনীতিক ও জনপ্রতিনিধি।

নুরজাহান ইসলাম নীরার মৃত্যুতে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আনোয়ার হোসেন সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, আমি মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি ও শোকাভিভূত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here