করোনার উৎস জানতে নতুন তদন্ত নিয়ে পরস্পরবিরোধী অবস্থানে যুক্তরাষ্ট্র-চীন

0
75

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

করোনাভাইরাস মহামারির উৎস কীভাবে শনাক্ত করা যায় তা নিয়ে চরম বিরোধী অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও চীন। স্বতন্ত্র আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র এ বিষয়ে নতুন তদন্ত পরিচালনার আহ্বান জানানোর পর দুই দেশের মতানৈক্য আরও বেড়েছে।

ওয়ালস্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) এক বার্ষিক সম্মেলনে সম্প্রতি বেইজিংয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, তারা মনে করছে চীনে তদন্তটি সম্পূর্ণ হয়েছে এবং অন্যান্য দেশের ওপর এখন এ বিষয়ে মনোযোগ দেওয়া উচিত। প্রায় দেশের সরকার প্রধানের উপস্থিতিতে সম্মেলনটিতে দ্বিপক্ষীয় মতামত প্রকাশিত হয়েছিল এবং সেখানে সৃষ্ট রাজনৈতিক উত্তেজনা ভাইরাসের উৎস খোঁজার প্রয়াসে রীতিমতো প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে।

ভাইরাসের উৎস নিয়ে চলতি বছরের মার্চে ডব্লিউএইচও এবং চীন একটি যৌথ তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করে। তবে প্রতিবেদনটিতে চূড়ান্তভাবে বলা হয়নি কীভাবে অথবা কবে নাগাদ ভাইরাসটির সংক্রমণ শুরু হয়েছিল। এছাড়া চায়নিজ কমিউনিস্ট পার্টি (সিসিপি) নিজেদের সুবিধার্থে তদন্তটি তাদের দিকে নিয়ে গিয়েছে পশ্চিমাদের এমন উদ্বেগ হ্রাসেও খুব একটা প্রচেষ্টা করা হয়নি।

ডব্লিউএইচওর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভাইরাসটি কোনো ল্যাব থেকে এসেছে এমন সম্ভাবনা ‘একেবারেই অসম্ভব’। প্রতিবেদনটিতে আরও বলা হয়, কোনো ল্যাব ভাইরাসটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এ ধরনের ‘কোনো রেকর্ড’ নেই।

এদিকে মহামারির উৎস তদন্তে নিয়োজিত ডব্লিউএইচওর তদন্তকারী দলকে কোভিড-১৯ সংক্রমনের শুরুর দিকের কোনো তথ্য দেয়নি চীন। বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে মহামারির শুরুর দিকে আন্তর্জাতিক তদন্তকারীদের চীনে প্রবেশ বেশ কয়েকমাস বিলম্বিত করেছে তারা। বলা হচ্ছে ফরেনসিক বিশ্লেষণের আগেই ল্যাবটি খুব ভালোভাবে পরিস্কার করে ফেলা হয়েছিল।

ওয়ালস্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনে বলা হয়, ডব্লিউএইচওর বার্ষিক ওয়ার্ল্ড হেলথ অ্যাসেম্বলিতে (ডব্লিউএইচএ) মার্কিন কর্মকর্তারা ভাইরাসের উৎস জানতে দ্বিতীয় পর্যায়ের তদন্ত পরিচালনার রূপরেখা তৈরির চেষ্টা করেন।
হোয়াইট হাউসের কোভিড-১৯ বিষয়ক জেষ্ঠ্য পরামর্শক অ্যান্ডি সালভিট বলেন, ‘মহামারির উৎস সম্পর্কে জানতে গভীর তদন্তের ওপর যুক্তরাষ্ট্র সবচেয়ে গুরুত্ব দিচ্ছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের এর পুরোটা জানা প্রয়োজন এবং চীনের থেকে পরিপূর্ণ স্বচ্ছ প্রক্রিয়া চাই। আমরা চাই ডব্লিউএইচও এ বিষয়টিতে সহযোগিতা করুক।’

তবে এই প্রচেষ্টাগুলো পুরোপুরি চীনের মনোভাবের বিপরীত। চীন এখন চাইছে ডব্লি উএইচও এখন অন্যান্য দেশে তদন্ত করুক এবং চীনের দাবি ভাইরাসটি অন্য কোথাও থেকে উৎপত্তি হয়েছে।

ও’নেইল ইনস্টিটিউট ফর ন্যাশনাল অ্যান্ড গ্লোবাল হেলথ ল’য়ের ফ্যাকাল্টি ডিরেক্টর লরেন্স গস্টিন বলেন, ‘চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কের পরিপ্রেক্ষিতে বলা যায় ওয়াশিংটনের অনুরোধ অনুযায়ী পরিপূর্ণ এবং স্বতন্ত্র তদন্তে বেইজিংয়ের সহযোগিতা করার সম্ভাবনা খুবই কম।’

যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনেস্ট্রেশনের (এফডিএ) সাবেক প্রধান সম্প্রতি জানিয়েছেন কোভিড-১৯ উহানের কোন ল্যাব থেকে উৎপত্তি হয়েছে এমন সম্ভাবনার পেছনে প্রমাণ ক্রমে বাড়ছে।

সূত্র: এএনআই

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here