জলাশয় দখলের প্রতিবাদ করায় হামলা, ১১ জনের নামে মামলা

0
55

বিশেষ প্রতিনিধি
জমিজমা বিরোধের জেল ধরে জোর পূর্বক জলাশয় দখলের চেষ্টা ও জোর পূর্বক মাছ ধরতে বাঁধা দেওয়ায় চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের হাতে একই পরিবারে স্বামী স্ত্রী ও তাদের ছেলে আহত হয়েছে। সন্ত্রাসীরা বাড়িতে ঢুকে নগদ ৩লাখ ৫৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় কোতয়ালি মডেল মঙ্গলবার ২৫ রাতে ১১ সন্ত্রাসীর নামে মামলা হয়েছে।
মামলাটি করেছেন, যশোর সদর উপজেলার সাজিয়ালী গ্রামের মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা ইমান আলীর ছেলে হযরত আলী।
আসামীরা হচ্ছে, যশোর সদর উপজেলার সাজিয়ালী গ্রামের গ্রামের মৃত হারান আলী গাজীর ছেলে লুৎফর রহমান, মোশারফ হোসেন, সাবাসপুর গ্রামের লিটন, দোগাছিয়া গ্রামের রমজান আলী ডাকাতের ছেলে রবিউল ইসলাম ওরফে রবিউল ডাকাত, ছাতিয়ানতলা গ্রামের দাউদ হোসেনের ছেলে তানভীর রক্সি ও রাসেল হোসেন, বাগডাঙ্গা গ্রামের নিছার আলীর ছেলে আলম, সৈয়দ আলী বাঙ্গালের ছেলে আমিরুল ইসলাম, ইসলামপুর গ্রামের শুকুর আলীর ছেলে আব্দুল রাজ্জাক, আব্দুলুর গ্রামের আব্বাস আলী মন্ডলের ছেলে আনিচুর রহমান ও চুড়ামনকাটি গ্রামের মোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে মেহেদী হাসান রুনুসহ অজ্ঞাতনামা ২/৩জন।
মামলায় হযরত আলী উল্লেখ করেন, আসামীরা সন্ত্রাসী ও অস্ত্রধারী। আসামীদের সাতে বাদির জমিজমা সংক্রান্ত মনোমালিন্য চলে আসছে। তারই জের ধরে আসামীরা বাদিকে খুন জখমের হুমকী দিয়ে আসছিল। বাদির বাড়ির পূর্ব পাশের্^ জলাশয়ে বাদি মাছের চাষ করে। আসামীরা উক্ত জলাশয় তাদের দাবি করে প্রায় বাদির চাষকৃত মাছ ধরে নিয়ে যায়। বিষয়টি বাদি স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের জানিয়ে আসামীদের উপস্থিতিতে গত ১৯মে জমি মেপে সিমানা নির্ধারণ করে নেই। পরের দিন ২০ মে সকাল সোয়া ১০ টায় উক্ত আসামীরা বাদির জলাশয়ে অনধিকার প্রবেশ করে বাদির চাষকৃত ১লাখ টাকা মাছ ধরে নেই। বাদি সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হতে তাদেরকে বাধা প্রদান করলে বাদিকে গালিগালাজের এক পর্যায় মারপিট শুরু করে। বাদির স্ত্রী রাবেয়া বেগম ছেলে ইসমাইল হোসেন ঠেকাতে এলে তাদেরকে মারপিট শুরু করে। সন্ত্রাসীদের হাত থেকে বাঁচার জন্য স্ত্রী ও ছেলে দৌড়ে বাড়ির দিকে ছুটলে আসামীরা পিছুপিছু নিয়ে বাদির উঠানে থাকা বিভিন্ন জিনিষপত্র ভাংচুর করে। মোশারফ হোসেন বাদির ঘরে প্রবেশ করে টেবিলের ড্রয়ে থাকা নগদ ৩লাখ ৫৫ হাজার টাকা নিয়ে নেয়। বাদি ও তাার স্ত্রী ছেলের ডাক চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে আসামীরা প্রাণ নাশের হুমকী দিয়ে চলে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় বাদিসহ তার পরিবারের সদস্যদের চিকিৎসা দেওয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here