ভুয়া পোস্টে লেবেল মেরে দেবে ফেসবুক, আংশিক সত্য হলে রেটিং

0
69

প্রযুক্তি ডেস্ক
বাংলাদেশ থেকে ফেসবুকে শেয়ার করা বাংলা বা ইংরেজি ভাষায় লেখা বিষয়বস্তু, ছবি এবং ভিডিও এখন থেকে তৃতীয় পক্ষ দিয়ে যাচাই করবে ফেসবুক। যাচাইয়ের পর ফেসবুকে প্রকাশিত লেখা, ছবি ও ভিডিও আংশিক সত্য হলে তার রেটিং করা হবে। আর সম্পূর্ণ ভুল তথ্য বা ভুয়া ছবি প্রদর্শিত হলে তার ওপরে বিশেষ লেবেল দেওয়া হবে, যেন ব্যবহারকারীরা নিজেরাই সিদ্ধান্ত নিতে পারেন এটা তারা দেখবেন কিনা। বাংলাদেশে ফেসবুকের জনসংযোগ প্রতিষ্ঠান বেঞ্চমার্কের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
এতে বলা হয়, পোয়েন্টার ইনস্টিটিউটের নিরপেক্ষ ইন্টারন্যাশনাল ফ্যাক্ট চেকিং নেটওয়ার্ক (আইএফসিএন) স্বীকৃত এএফপি ও ফ্যাক্ট চেকের মাধ্যমে ভুল তথ্য ছড়ানো রোধ করার প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে ফেসবুকের থার্ড পার্টি ফ্যাক্ট চেকিং কার্যক্রমে যুক্ত হয়েছে এর আন্তর্জাতিক পার্টনার এএফপি ও বাংলাদেশ ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ফ্যাক্ট ওয়াচ। ২০২০ সালে বাংলাদেশে ‘বুমে’র সঙ্গে প্রথম এই কার্যক্রম শুরু করে ফেসবুক, যার সঙ্গে এখন যুক্ত হলো এএফপি ও ফ্যাক্ট চেক। ফেসবুকে বাংলাদেশ থেকে শেয়ার করা বাংলা বা ইংরেজিতে লেখা পোস্ট, ছবি ও ভিডিওর সঠিকতা যাচাই এবং রেটিং করবে তারা।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, থার্ড পার্টির ফ্যাক্ট চেকাররা যদি কোনো বিষয়বস্তুকে অসত্য, পরিবর্তিত কিংবা আংশিক অসত্য হিসেবে চিহ্নিত করে, তখন তা নিউজফিডে কম প্রদর্শিত হবে। ইনস্টাগ্রামও এ ধরনের স্টোরি এক্সপ্লোর ও হ্যাশট্যাগ পেজগুলোতে ফিল্টার করে দেখাবে এবং তা ফিডের নিচের দিকে থাকবে। যদি কোনো পেজ বা ডোমেইন বারবার ভুয়া খবর শেয়ার করে, তাহলে তার পোস্ট ডিস্ট্রিবিউশন কমে আসবে এবং তাদের পেজের মনিটাইজেশন ও বিজ্ঞাপনগুলো বন্ধ করে দেওয়া হবে।
এছাড়া ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামে থাকা যেসব কনটেন্টকে ভুয়া কিংবা সত্য থেকে কিছুটা পরিবর্তিত হিসেবে চিহ্নিত করা হয়, সেগুলোর ওপরে বিশেষ লেবেল দেওয়া হয়, যাতে করে এই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহারকারীরা নিজেরাই ঠিক করতে পারেন তারা কি পড়বেন, বিশ্বাস করবেন এবং শেয়ার করবেন। ইনস্টাগ্রামে প্রকাশিত অসত্য ও বানোয়াট ছবি, ভিডিও এবং স্টোরির ওপরের অংশে এই লেবেলটি প্রদর্শিত হয়। এছাড়া ফ্যাক্ট চেকাররা কী যাচাই করেছেন, তার লিঙ্কও দেওয়া থাকে।
ফেসবুকের গ্লোবাল ফ্যাক্ট চেকিং কার্যক্রম ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে শুরু হয়। বর্তমানে এই তথ্য যাচাই প্রক্রিয়ায় ৮০’র অধিক পার্টনার ৬০টির অধিক ভাষায় কনটেন্টের ফ্যাক্ট চেক কার্যক্রম পরিচালনা করছে।
ফেসবুক এশিয়া প্যাসিফিকের নিউজ পার্টনারশিপের পরিচালক অঞ্জলি কাপুর বলেন, ভুয়া খবর শেয়ার করা প্রতিরোধে চলমান প্রচেষ্টার একটি অংশ হিসেবে এএফপি এবং ফ্যাক্ট ওয়াচের সঙ্গে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে কাজ করছে ফেসবুক। বাংলাদেশে তথ্য সচেতন সমাজ গড়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে একসঙ্গে কাজ করার ব্যাপারে ফেসবুক আশাবাদী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here