স্বর্ণের বার ও বৈদেশিক মুদ্রাসহ আটকরা একদিনের রিমান্ডে

0
21

বিশেষ প্রতিনিধি
যশোরে স্বর্ণেরবার ও বৈদেশিক মুদ্রা পাচারের আলাদা মামলায় আটক তিন জনের একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত বিজ্ঞ বিচারক । ২৪ মে সোমবার আসামির রিমান্ড আবেদনের শুনানি শেষে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সাইফুদ্দীন হোসাইন এ আদেশ দিয়েছেন। রিমান্ড প্রাপ্তরা হচ্ছে, যশোরের শার্শার সাদীপুর গ্রামের আব্দুল জব্বার মিয়ার ছেলে সুমন মিয়া, বেনাপোলের ছোট আচড়া গ্রামের জাকির হোসেনের ছেলে শহিদুল ইসলাম ও যশোর সদরের বারীনগর গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে সেহেল রানা।
মামলার অভিযোগে জানা গেছে, গত ১৭ মে যশোর ৪৯ বিজিবি’র একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চাঁচড়া চেকপোস্টে বেনাপোলগামী যাত্রীবাহি বাসে তল্লাশি করে। এ সময় সন্দেহজনক ভাবে সুমন মিয়াকে আটক ও দেহ তল্লাশি করে সোনার ১০টি উদ্ধার করা হয়। এ ব্যাপারে বিজির হাবিলদার নুরুল ইসলাম বাদী হয়ে চোরাচালান দমন আইনে কোতয়ালি থানায় মামলা করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চাঁচড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক রোকিবুজ্জামান আটক সুমন মিয়ার ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করেন। গতকাল আসামির রিমান্ড আবেদনের শুনানী শেষে বিচারক একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
অপর দিকে গত ২২ জানুয়ারি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সদরের হামিদপুর বাজার এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় বাজারের পূর্বপাশে নড়াইল সড়কের উপর ৪ জনকে দেখে সন্দেহজনক ভাবে তাকে আটক করা হয়। এ সময় তাদের দেহ তল্লাশি করে বিশেষ কায়দায় তৈরী কাপড়ের বেল্টের মধ্যে রাখা এক লাখ ৯০ হাজার ইউএস ডলার উদ্ধার করা হয়। এ ব্যাপারে সুবেদার আব্দুল আউয়াল বাদী হয়ে চোরাচালন দমন আইনে কোতয়ালি থানায় মামলা করেন। মামলাটি প্রথমে থানা পুলিশ পরে সিআইডি পুলিশ তদন্তের দায়িত্ব পান। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিদর্শক রফিকুল ইসলাম সোহেল রানা ও শহিদুল ইসলামের ৭ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন আদালতে। গতকাল আসামিদের রিমান্ড আবেদনের শুনানী বিচারক প্রত্যেকের একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here