খুলনা থেকে সবজির প্রথম চালান গেল ইউরোপে

0
41

সত্যপাঠ ডেস্ক

খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলা থেকে বাণিজ্যিকভাবে এ প্রথম ইউরোপে সবজি রফতানি শুরু হয়েছে। গতকাল সকালে উপজেলার খর্নিয়া ইউনিয়নের টিপনা গ্রামের ‘ভিলেজ সুপার মার্কেট’ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রথম চালানে এক টন সবজি ইতালি ও ইংল্যান্ডে পাঠানো হয়। খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন ভার্চুয়ালি যুক্ত থেকে এ সবজি রফতানি উদ্বোধন করেন। প্রথমবারের মতো সবজি রফতানি হওয়ায় ডুমুরিয়ার কৃষকদের মধ্যে বইছে খুশির জোয়ার। দেখা দিয়েছে সম্ভাবনার নতুন দিগন্ত।

রফতানি শুরুর প্রথম দিনেই শুক্রবার পেঁপে, পটোল, কচুর লতি ও কাঁচকলা পাঠানো হয়েছে বলে ওই মার্কেটের তত্ত্বাবধায়ক শহিদুল ইসলাম জানিয়েছেন। তিনি আরো বলেন, ‘সফল’ প্রকল্পের আওতায় খুলনা ও যশোরের প্রায় দেড় লাখ কৃষক নিরাপদ সবজি উৎপাদন করছেন। সেই সবজি প্রক্রিয়াকরণের জন্য নেদারল্যান্ডস সরকারের আর্থিক সহায়তায় ডুমুরিয়ায় ভিলেজ সুপার মার্কেট প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। সেখান থেকে এ বছর ১২০ টন সবজি রফতানির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। তারই অংশ হিসেবে শুক্রবার সকালে প্রথম চালানে ইতালি ও লন্ডনে এক টন সবজি পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের আর্থিক সহায়তায় এনএইচবি করপোরেশন ও আরআর এন্টারপ্রাইজ নামের দুটি রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান এসব সবজি রফতানি করছে। এ রফতানিতে সার্বিক সহযোগিতা করছে ডুমুরিয়া উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

শহিদুল ইসলাম জানান, সারা বিশ্বেই মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্য সচেতনতা বাড়ছে। বাড়ছে ফল ও সবজি খাওয়ার প্রবণতা। সে কারণে সবজি রফতানির সম্ভাবনা উজ্জ্বল। তবে সবজি রফতানির ক্ষেত্রে সঠিকভাবে উৎপাদন ও প্রক্রিয়াজাত সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। নিরাপদ সবজি উৎপাদন করতে যে ধরনের পরিশ্রম ও খরচ হয়, সে অনুযায়ী দাম পান না কৃষকরা। রফতানির দ্বার খুলে গেলে কৃষকদের সেই সমস্যা আর থাকবে না।

ডুমুরিয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোছাদ্দেক হোসেন বলেন, সবজি উৎপাদনে ডুমুরিয়ার খ্যাতি রয়েছে। রফতানিকারকদের নির্দেশনা অনুযায়ী সবজি প্রক্রিয়াজাত করার পর রফতানি করা হচ্ছে। এটি সফল হলে খুলনার অন্য উপজেলার কৃষকদের জন্যও সম্ভাবনার নতুন দ্বার খুলে যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here