প্রাণ পাচ্ছে কুড়িগ্রামের চাকিরপশার নদী

0
63

পরিবেশ ডেস্ক
কুড়িগ্রামের রাজারহাটের চাকিরপশার নদীর উদ্ধারের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে পরিবেশবাদী বিভিন্ন সংগঠনের পাশাপাশি ভুক্তভোগী এলাকাবাসী আন্দোলন-সংগ্রাম করে আসছেন। তাদের স্বপ্ন, চাকিরপশার নদীতে পানির ঢল নামবে। বাড়বে ফসলের উৎপাদন। নিজ পেশায় ফিরে যাবেন জেলেরা। তাদের সেই স্বপ্ন ও দাবি বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে। প্রাণ ফিরে পাচ্ছে মৃত চাকিরপশার।
প্রায় ৩ বছর আন্দোলনের পর কুড়িগ্রামের রাজারহাটের চাকিরপশার নদীর প্রথম দফা খনন কাজ শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে খননকাজের উদ্বোধন করেন রাজারহাট উপজেলা চেয়ারম্যান জাহিদ সোহরাওয়ার্দী বাপ্পি। এতে স্বস্তি প্রকাশ করছেন এই নদীর তীরবর্তী ও সুবিধাভোগী এলাকাবাসী।
মঙ্গলবার রাজারহাট উপজেলার বোতলারপাড় বটতলা বাজার এলাকায় নদীর উজানমুখে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের তত্ত্বাবধানে ১৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ২ কিলোমিটার নদী খনন প্রকল্পের দায়িত্বে রয়েছে রাফি বিল্ডার্স ও আনসারী কনস্ট্রাকশন। রাজারহাট ইউনিয়নের ইটাকুড়ির দোলা সংলগ্ন আঙ্গাধোয়ার ব্রিজ থেকে দক্ষিণ দিকে একই ইউনিয়নের নলাডাঙার ব্রিজ পর্যন্ত সি এস রেকর্ড অনুযায়ী খনন করা হবে বলে জানায় সংশ্লিষ্টরা।
গত বছরের ২০ ডিসেম্বর সমকালে প্রথম পাতায় ‘নদীতে নেতাদের পুকুর’ শিরোনামে দখল দৌরাত্ম্যে মরে যাওয়া চাকিরপশা নিয়ে সংবাদ প্রকাশ হয়। এরপর এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে তোড়জোড় শুরু হয়। অবশেষে খনন কাজ শুরু হওয়ায় নদীসংলগ্ন ২৫ হাজার একর ধানের জমি জলাবদ্ধতা থেকে রক্ষা পাবে বলে মনে করেন স্থানীয়রা।
চাকিরপশার নদী সুরক্ষা কমিটির সমন্বয়ক ড. তুহিন ওয়াদুদ বলেন, ‘স্থানীয় প্রভাবশালীরা জবরদখল করে নদীকে অস্তিত্ব সংকটে ফেলেছেন। নদীটি খননের জন্য এবং অবৈধ দখলমুক্ত করতে চাকিরপশার নদী সুরক্ষা কমিটি আন্দোলন করে আসছে। প্রথমে জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনে স্মারকলিপি দেওয়া হয়, তারপর জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের কাছেও স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।’ প্রায় ১২২ জন দখলদারদের বিরুদ্ধে নানা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে আন্দোলন সফল হয়েছে বলেও জানান তিনি।
খননকাজের মধ্যদিয়ে চাকিরপশার নদী তার হারানো অস্তিত্ব ফিরে পাবে বলে দাবি করে ড. তুহিন ওয়াদুদ বলেন, ‘প্রায় ৩০ বছর আগে এই নদী খনন করা হলেও দখলদারদের কবলে পড়ে অদৃশ্য হয়ে যায়। এবার খনন কার্যক্রম সফল হলে কৃষি, মাছচাষ, জীববৈচিত্র্য ও পরিবেশ সুরক্ষা হবে।’
[দৈনিক সমকাল থেকে]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here