ভারতকে অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান দেওয়ার আশ্বাস বাইডেন প্রশাসনের

0
15

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর ভারতের সঙ্গে ক্রমশ সম্পর্কের ভিত মজবুত হচ্ছে জো বাইডেনের। বর্তমান করোনা পরিস্থিতি থেকে শুরু করে ক্ষমতায় আসার মাত্র কয়েক মাসের মধ্যেই একাধিক ইস্যুতে ভারতের দিকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন তিনি।
সম্প্রতি মার্কিন কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে বক্তৃতা দিতে গিয়েও সবাইকে একসঙ্গে নিয়ে চলার বার্তাও দেন বাইডেন।
এবার ভারতের হাতে অত্যাধুনিক মানের ৬টি পি-এইট এল প্যাট্রোল এয়ারক্রাফট তুলে দেওয়ার কথা ঘোষণা দিয়েছে বাইডেন প্রশাসন।
শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) এই বিষয়ে মার্কিন প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা কর্পোরেশন এজেন্সির তরফে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানানো হয়, ভারতের সুরক্ষা, শান্তি এবং নিরাপত্তা সংক্রান্ত নজরদারির জন্য তাদের হাতে অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান খুব দ্রুত তুলে দেওয়া হবে।
এই যুদ্ধ বিমানগুলি ভারতের হাতে চলে এলে দেশটির নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার হবে। এছাড়াও এই প্রস্তাবের অন্যতম আরও একটি উদ্দেশ্য হলো ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে শান্তি বজায় রাখা।
এর আগে গত ২০০৯ সালের জানুয়ারি মাসে ভারতীয় নৌ-বাহিনী মোট আটটি পি-এইটএল এয়ারক্রাফট কিনেছিল। যদিও ২০১৩ সালে ভারতীয় বিমান বাহিনীর হাতে প্রথম এই এয়ারক্রাফট আসে।
এই বিষয়ে মার্কিন প্রশাসনের পক্ষ থেকে আরও জানা গেছে, এই ৬টি যুদ্ধবিমান ভারতের হাতে গেলে ভারতের সামরিক শক্তি আরও বাড়বে। শুধু তাই নয়, এই নজরদারি বিমান দিয়ে আগামী ত্রিশ বছর ভারতীয় সেনাও এগুলোর সবই ব্যবহার করতে পারবে।
অন্যদিকে, করোনা মোকাবিলায় ভারতের পাশে রয়েছে আমেরিকা। গত বুধবার রাতেই হোয়াইট হাউসের তরফে ১০০ কোটিরও বেশি মূল্যের করোনার ত্রাণ সামগ্রী ভারতে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়।
প্রসঙ্গত, করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সোমবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করেন। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের সঙ্গে লড়তে ভারতকে ভ্রাতৃত্বের বার্তা দেন তিনি।
মঙ্গলবার ফের এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, যা প্রয়োজন তার সবই পাঠাবে আমেরিকা। রেমডেসিভির ও অন্যান্য ওষুধ যেগুলো এই ভাইরাসের সঙ্গে লড়তে পারে সেগুলোও পাঠানো হবে। আমরা সেসব মেকানিক্যাল জিনিসও পাঠাচ্ছি যেগুলো ভ্যাকসিন তৈরির জন্য প্রয়োজনীয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here