মালিকপক্ষ প্রণোদনা পায়, শ্রমিকরা হাহাকার করে মরে: ফকির আলমগীর

0
86

বিনোদন ডেস্ক
ফকির আলমগীর। বরেণ্য গণসংগীতশিল্পী ও সংগঠক। আজ মে দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচার হবে তার গান ও সাক্ষাৎকার। আজকের আয়োজন ও অন্যান্য প্রসঙ্গ নিয়ে কথা হয় তার সঙ্গে-
মে দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ গণসংগীত পরিষদ এবার কোনো আয়োজন করছে?
করোনার জন্য এবার বাংলাদেশ গণসংগীত পরিষদ ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। আজ রাত ৯টায় শুরু হবে দু’দিনের এ আয়োজন। গোলাম কুদ্দুছ, মফিদুল হকসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বের আলোচনার পাশাপাশি থাকছে আরও অনেক কিছু। আজকের মতো আগমীকালও একই সময়ে শুরু হবে ভার্চুয়াল এ আয়োজন।

আজ কোনো টিভি আয়োজনে অংশ নেবেন?
চ্যানেল আইয়ের ‘তারকা কথন’ অনুষ্ঠানে অংশ নেব। এর পাশাপাশি চ্যানেলটি মে দিবসের প্রথম প্রহরে আমার ‘জন হেনরি’ গানটি প্রচার করবে। এ ছাড়া বিটিভি প্রচার করবে আমার সংকলিত গানের অনুষ্ঠান ‘সাম্যের গান’। এতে থাকছে ‘১৮৮৬ পহেলা মে’, ‘চল মজদুর’, ‘নাম তার জন হেনরি’, ‘দুনিয়ার মজদুর’সহ বেশ কিছু গান। অন্যান্য চ্যানেলও প্রচার করবে মে দিবস নিয়ে গাওয়া আমার গানগুলো।

শিল্পী জীবনে গণসংগীতকে প্রাধান্য দেওয়ার কারণ কী?
গান শুধু বিনোদনের নয়, সমাজ বদলেরও হাতিয়ার। এটা মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি বলেই কয়েক দশক ধরে গণসংগীত গাইছি। শ্রমিকের অধিকার আদায় থেকে শুরু করে বিশ্বজুড়ে যে শ্রেণি বৈষম্য- তার বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলতে গান অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করেছি। শিশুশ্রম বন্ধ, নারী শ্রমিকের ন্যায্য পারিশ্রমিক দেওয়া থেকে শুরু করে মানবতার কথাও উঠে এসেছে আমার গানে। এক কথায়, গানই আমার প্রতিবাদের ভাষা।

গানে যে সাম্যবাদের কথা বলছেন, তা কতটুকু প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বলে মনে করেন?
কোনো কিছু রাতারাতি বদলে যাবে- এটা ভাবার কারণ নেই। ধৈর্য নিয়ে আমাদের লড়াই চালিয়ে যেতে হবে। যুগ যুগ ধরে দেখছি, শাসক শ্রেণি শোষণ করে চলছে; অথচ তার কোনো প্রতিকার হচ্ছে না। সাম্প্রতিক সময়েও দেখছি, মালিকপক্ষ প্রণোদনা পাচ্ছে আর শ্রমিক শ্রেণি হাহাকার করে মরছে। এর বাইরে বিশ্বজুড়ে বর্ণবাদ, নির্যাতন, শোষণ চলছেই। আর তার বিরুদ্ধে আমরা যখন গানকে হাতিয়ার করে প্রতিবাদ জানাচ্ছি, তখন মানুষের বিবেকে কিছুটা হলেও নাড়া দিচ্ছে। মানুষ এগিয়ে আসছে নির্যাতিতের পাশে। জর্জ ফাইডের মৃত্যুতেও আমরা মানুষকে পথে নেমে আন্দোলন করতে দেখেছি। সেখানেও ঘুরেফিরে সাম্যবাদের কথাই উঠে এসেছে।

এভাবেই গণসংগীত মানুষের মনে ছাপ ফেলবে বলেই বিশ্বাস করি।
‘দুনিয়া কাঁপানো মানুষের গান’ সিরিজ তৈরির বিষয়ে যে ভাবনা নিয়ে কাজ করেছেন, তা নিয়ে বলুন?
কিছু মানুষ মনবতার জন্য জীবন উৎসর্গ করে গেছেন। শ্রেণি বৈষমের‌্য বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছেন আর বদলে দিতে চেয়েছেন সামাজ। হো চি মিন, চে গুয়েভারা, লেনিন, নেলসন ম্যান্ডেলা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান- এমন সব খ্যাতিমান মানুষের কথা প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম তুলে ধরার জন্য সিরিজ আকারে ‘দুনিয়া কাঁপানো মানুষের গান’ তৈরি করছি।

এর মধ্যে নতুন কোনো গান রেকর্ড করেছেন?
বেশ কিছু গান রেকর্ড করেছি। তার মধ্যে হেমাঙ্গ বিশ্বাসের কথা ও সুরে ‘বাঁচবো রে বাঁচবো আমরা’ গানটি প্রকাশ করছে কলের গান মাল্টিমিডিয়া। এর পাশাপাশি প্রকাশ পাচ্ছে গোলাম মোর্শেদের লেখা ও বাসু দেবের সুরে ‘চল মজদুর’ গানটি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here