‘রক্ত দেব তো পানি দেব না’ ‘পানি ঠেকাও, ফুলতলা বাঁচাও’ শ্লোগানে জেলা প্রশাসক বরাবর স্বারকলিপি প্রদান

0
132

মঈন উদ্দিন, ফুলতলা
‘রক্ত দেব তো পানি দেব না’, ‘পানি ঠেকাও, ফুলতলা বাঁচাও’ শ্লোগান নিয়ে খুলনা ওয়াশা কর্তৃক ফুলতলার ভূগর্ভস্থ সুপেয় পানি উত্তোলন করার প্রতিবাদে রোববার সকাল সাড়ে ১১ টায় ফুলতলা উপজেলা পানি ও পরিবেশ রক্ষা কমিটির উদ্যোগে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন বরাবর স্বারকলিপি প্রদান করা হয়।
যার অনুলিপি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন, থানার অফিসার ইনচার্জ মাহাতাব উদ্দিন ও আবাসিক প্রকৌশলী উৎপল চন্দ্র দে’র দপ্তরে প্রদান করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ আকরাম হোসেন, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির খুলনা জেলা সাধারণ সম্পাদক ও পানি ও পরিবেশ রক্ষা কমিটির আহবায়ক কমরেড আনসার আলী মোল্যা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কমিটির সদস্য সচিব সরদার শাহাবুদ্দিন জিপপী, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক কৃষি বিষয়ক সম্পাদক আসলাম খান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কে.এম জিয়া হাসান তুহিন, ফুলতলা প্রেসক্লাবের সভাপতি, উপজেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি ও বাজার বণিক কল্যাণ সোসাইটির সহ-সভাপতি এস এম মোস্তাফিজুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক এস মৃনাল হাজরা, ইউপি চেয়ারম্যান শরীফ মোহাম্মদ ভূঁইয়া শিপলু ও শেখ মনিরুল ইসলাম, সহকারী অধ্যপক গৌতম কুন্ডু প্রমুখ।
স্বারকলিপিতে উল্লেখ করা হয় কৃষিকাজে ভূগর্ভস্থ পানি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১৮ ও ১৯৮৩ সালের আন্তর্জাতিক আইনকে লঙ্ঘন করে ওয়াসা কর্তৃক খুলনা নগরবাসীকে সুপেয় পানি সরবরাহ করার জন্য ফুলতলার বিভিন্ন স্থানে ২৫ টি বুস্টার পাম্প স্থপনের মাধ্যমে প্রতিদিন কমপক্ষে ১ কোটি লিটার পনি উত্তোলন শুরু করেছে। বর্তমানে করোনাকালীণ সময়ের লকডাউনকে কাজে লাগিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ স্থাপনের মাধ্যমে এই ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে খুলনা ওয়াশা।
২০০৫ সালে অত্র ষড়যন্ত্র শুরু হলে তা রুখে দেওয়ার লক্ষ্যে পরিবেশবাদী সংস্থা বেলা হাইকোর্টে রিট করলে মহামান্য হাইকোর্ট তার স্থগিতাদেশ প্রদান করেন। এছাড়াও কৃষিকাজে ভূগর্ভস্থ পানি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১৮ সংসদে পাশ হয় বলে গত ২১/০১/২০১৮ ইং তারিখে প্রথম আলো পত্রিকায় সংবাদ পরিবেশন ও ১৯৮৩ সালের আন্তর্জাতিক আইন পরিপন্থী বলে উল্লেখ করা হয়।
যার ফলে বিকল্প হিসেবে ওয়াশা মধুমতি নদী থেকে পানি নিয়ে তা শোধনপূর্বক খুলনা নগরবাসীকে সরবরাহ করার পরিকল্পনা করে। ২০১৯ সালে সে পরিকল্পনা বাদ দিয়ে ফুলতলা থকে পুণঃরায় পানি নেওয়ার পায়তারা করে ওয়াসা। এর ধারাবাহিকতায় গত ০৫/১২/২০১৯ ইং তারিখ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন বরাবর স্বারকলিপি প্রদান করা হয়।
স্মারকলিপিতে আরও বলা হয় ফুলতলা থেকে উল্লেখিত পানি উত্তোলন করা হলে অত্র এলাকার পানির স্তর ধীরে ধীরে নিচে নেমে যাবে এবং পানি পাওয়া যাবে না অগভীর নলকুপ থেকে। ফলে ক্ষতিগ্রস্থ হবে অত্র অঞ্চলের নার্সারী, মৎস্য খামার, চিংড়ি ঘের, ধানসহ বিভিন্ন ফসলের আবাদ। অতি সত্ত্বর ওয়াশা কর্তৃক ফুলতলার ভূগর্ভস্থ পানি নেওয়া বন্ধ না হলে আগামীতে আরও কঠোর কর্মসূচী গ্রহণের হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন ফুলতলা উপজেলা পানি ও পরিবেশ রক্ষা কমিটির নেতৃবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here