যশোরে এ্যাম্বুলেন্সে ঢাকা নিয়ে যাওয়ার কথা বলে টাকা নিয়ে পালানোকালে প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্যর বিরুদ্ধে মামলা

0
80

বিশেষ প্রতিনিধি
এ্যাম্বুলেন্সে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার কথা বলে একটি প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য স ম আব্দুল মান্নান দু’জন ব্যক্তির কাছ থেকে সাড়ে ৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালাবার সময় গ্রেফতার হওয়ার ঘটনায় কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা হয়েছে। মামলায় প্রতারক চক্রের দুই সদস্যর নাম উল্লেখসহ তাদের অজ্ঞাতনামা আরো ২/৩জন উল্লেখ করা হয়েছে।
এরা হচ্ছে, বাগের হাট জেলার সদর উপজেলার গোপালকাঠী গ্রামের বর্তমানে যশোর সদর উপজেলার ধর্মতলা কদমতলা আব্দুল আজিজ এর বাড়ির ভাড়াটিয়া মৃত ইউসুফ আলীর ছেলে স ম আব্দুল মান্নান ও তার সহযোগী পলাতক যশোর সদর উপজেলার চাঁচড়ার মোতালেব হোসেন। মামলাটি করেছেন, কুমিল্লা জেলার লালমাই থানার পেরুল মধ্যপাড়ার মৃত মৌদর আলী ওরফে মধু মিয়ার ছেলে আবু ইউসুফ।
মামলায় তিনি উল্লেখ করেন, মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল সকাল সোয়া ৮ টার পর যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের মেইন গেটের সামনে প্রতারক মোতালেব হোসেনের সাথে তার পরিচয় হয়। মোতালেব হোসেন বাদিকে এ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকা নিয়ে যাওয়ার কথা বলে প্রতারক চক্রের হোতা স ম আব্দুল মান্নানের কাছে নিয়ে যায়। স ম আব্দুল মান্নান বাদিকে এ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার জন্য বাদির কাছে ৩ হাজার টাকা ও বাদির সহযাত্রী আমির হোসেন এর নিকট ২ হাজার ৫শ’ টাকা নিয়ে এ্যাম্বুলেন্সের মালিকের নিকট নিয়ে যাওয়ার কথা বলে যশোর ২৫০- শয্যা জেনারেল হাসপাতালের দ্বিতীয় তলায় নিয়ে যায়। হাসপাতালের বারান্দায় বাদীসহ দু’জনকে দাড় করে রেখে স ম আব্দুল মান্নান একটি কক্ষের ভিতরে যায়। স ম আব্দুল মান্নানের আসতে দেরি হওয়ায় বাদি জানালা দিয়ে বাইরে তাকিয়ে দেখে স ম আব্দুল মান্নান টাকা নিয়ে দৌড়ে হাসপাতালের গেটের দিকে যাচ্ছে। বাদি তার সহযাত্রী আমির হোসেনসহ ডাক চিৎকার করলে হাসপাতালের গেটের সামনে একে স ম আব্দুল মান্নানকে তাদের দু’জনের টাকাসহ ধরে ফেলে। প্রতারক চক্রের অন্যান্য সহযোগীরা পালিয়ে যায়। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য স ম আব্দুল মান্নানকে ধরে থানা হেফাজতে নিয়ে যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here