যশোরে জমি নিয়ে শত্রুতার জের ধরে হামলার ঘটনায় মামলা॥ গ্রেফতার-১

0
33

বিশেষ প্রতিনিধি
জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিবেশী সন্ত্রাসীরা সদর উপজেলার রুপদিয়া বাজারস্থ কলাপট্টির সামনে মনিরুজ্জামান (৩৮)কে মারপিট করে পকেট হতে নগদ ৬৫ হাজার ৫শ’ ৫০ টাকা কেড়ে নেওয়ার ঘটনায় কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা হয়েছে। রোববার ১৮ এপ্রিল মামলাটি করেন আহত যুবকের পিতা যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর পশ্চিমপাড়ার আব্দুল খালেক।
মামলায় আসামী করেছেন, একই গ্রামের মৃত আব্দুল হক মোড়লের ছেলে হাই ও তার সহোদর হাসানুর রহমান ওরফে মিন্টুসহ অজ্ঞাতনামা ৪/৫জন। পুলিশ হামলার সাথে জড়িত এজাহার নামীয় প্রধান আসামী হাইকে গ্রেফতার করে সোমবার আদালতে সোপর্দ করেছে।
মামলায় আব্দুল খালেক বলেন, আসামীরা সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। তাহারা এলাকায় সন্ত্রাসী মূলক কর্মকান্ডসহ বিভিন্ন অপরাধ মূলক কর্মকান্ড করে বেড়ায়। হাই এলাকার কিশোর বাহিনীদের নিয়ে মাদক সেবন ও বিক্রয় করে বেড়ায়।
আসামীদের সাথে আব্দুল খালেকের পরিবারের পূর্বে জমি জমা বিষয় নিয়ে শত্রুতা দ্বন্দ্ব থাকায় আসামীরা বাদি ও তার পরিবারের লোকজন এবং তার ছেলে মনিরুজ্জামানকে চলাফেরার রাস্তায় দেখা হলে অকথ্যভাষায় গালিগালাজ করে। মারপিট করতে উদ্দ্যত হয় এবং খুন জখমের হুমকি দেয়। আব্দুল খালেক আসামীদের এহেন কার্যকলাপ করতে বাধা নিষেধ করতে গেলে আসামীরা পরস্পর শলাপরামর্শ করে বাদির পরিবারকে মারপিট করার সুযোগ খুজতে থাকে।
গত ২৬ মার্চ সকালে বাদির ছেলে মনিরুজ্জামান রুপদিয়া বাজারস্থ কলাপট্টির সামনে রাস্তার উপর কলা বিক্রি করার সময় সকার ৮ টায় হাই ও তার সহযোগীরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে লোহার রড লাঠি সোটা নিয়ে মনিরুজ্জামানের উপর হামলা চালায়। এ সময় মনিরুজ্জামানকে মারপিট করে তার প্যান্টের পকেটে থাকা ব্যবসায়ীক ও দোকান পজিশন ক্রয়ের অগ্রীম ৬৫ হাজার ৫শ’ ৫০ টাকা হাসানুর রহমান ওরফে মিন্টু কেড়ে নেয়। মনিরুজ্জামান মৃত্যুর শয্যায় হয়ে পড়ে গেলে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হলে পুলিশ হাইকে গ্রেফতার করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here