চুক্তির মেয়াদ শেষ হলেও মণিরামপুরে ২ শতাধিক জমির মালিককে ভয়-ভীতি দেখিয়ে পুনরায় ঘের নেয়ার অপতৎপরতার অভিযোগ

0
55

মণিরামপুর প্রতিনিধি
যশোরের মণিরামপুরে জমি লীজের চুক্তির মেয়াদ শেষ হলেও আবারো জমি মালিকদের ভয়-ভীতি দিয়ে জোরপূর্বক মাছের ঘের করতে অপতৎপরতায় লিপ্ত হয়েছেন সিরাজ মোল্যা নামের এক প্রভাবশালীসহ তার ভাড়াকরা লোকজন। উপজেলার কুলটিয়া ইউনিয়নের আলীপুর-গোবরডাঙ্গা ও নেহালপুর গ্রামের মধ্যেবর্তী গোবরডাঙ্গা বিলের জমি মালিকদের নামে মিথ্যা মামলা ও হামলার ভয় দেখানো হচ্ছে। ইতোমধ্যে উদয় ও সুমন নামের দুই জমি মালিককে মারপিটসহ শিক্ষক প্রণয় রায় ও সুমন রায় নামে কয়েকজন জমি মালিকের নামে মিথ্যা মামলা করেছেন সিরাজ মোল্যা। উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছে এলাকাবাসী।
জানাযায়, প্রায় ৯ বছর পূর্বে জমির অবস্থান হিসেবে প্রতি বিঘা জমি ৮ হাজার এবং ২৭ হাজার টাকার চুক্তিতে ওই ইউনিয়নের গোবরডাঙ্গা-আলীপুর গ্রামের মধ্যেবর্তী ভূষণার বিলের প্রায় দেড়শ’ বিঘা জমিতে মাছের ঘের করে আসছেন সিরাজ মোল্যা। দেড়শ’ বিঘা এ মাছের ঘেরের ভেঁড়ি ও খাল (ক্যানেল) ভূক্ত জমি মালিকদের বিঘা প্রতি ২৭ হাজার টাকা দেয়া হয়। মাছের ঘের করেই সিরাজ মোল্যা কোটিপতি বনে গেছেন। উপজেলার পূর্বাঞ্চলের মাছের ঘেরে ঝামেলা হলেই অধিকাংশ ক্ষেত্রেই সিরাজ মোল্যার কারনেই ঘটে বলে অভিযোগ। যে কারণে পুনরায় মাছের ঘের করতে বহিরাগত লোকজন দিয়ে জমির মালিকদের প্রতিনিয়ত হুমকি দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ। মাছ চাষী অপূর্ব কুমার বিশ^াস জানান, তিনি ১৭৬ জন জমির মালিকের মধ্যে প্রায় দেড়শ’ জনের কাছ থেকে প্রতি বিঘা জমি ৯ হাজার ও ৩০ হাজার টাকা হারে লিখিত চুক্তি করেছেন। বাকীরাও জমি দিবে বলে তার দাবী। জমি মালিক স্বপন বিশ^াস, আনন্দ বিশ^াস, সুমন দাস, অসীম মন্ডলসহ একাধিক জমির মালিকের অভিযোগ, সিরাজ মোল্যার সাথে নতুন করে জমি লীজের চুক্তিনামা না করায় তাদেরকে মামলা-হামলার হুমকি দেয়া হচ্ছে। তাদের জোর দাবী এবার কোনভাবেই তারা সিরাজ মোল্যাকে জমি দিতে চায় না। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শেখর চন্দ্র রায় বলেন, ৯ বছর আগে জমির মালিকরা সিরাজ মোল্যাকে ডেকে এনে জমি লীজ দেয়। কিন্তু সেই আন্তরিকতা ধরে রাখতে পারেননি সিরাজ মোল্লা। যে কারণে জমির মালিকগণ সিরাজ মোল্লাকে জমি লীজ না দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে, কাউকে হুমকী-ভয়ভীতি দেখানোর বিষয়টি অস্বীকার করে সিরাজ মোল্লা দাবী করেন, তার ঘেরের পাড় কেটে মাছ বের করে দেয়ায় তিনি মামলা করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here