আশাশুনির খাজরায় মৎস্য ঘেরের মালামাল লুট ও ভাংচুর ॥ থানায় এজাহার দাখিল

0
15

আশাশুনি প্রতিনিধি
আশাশুনি উপজেলার খাজরা ইউনিয়নের তুয়ারডাঙ্গার পল্লীতে এক মৎস্য ঘেরের মালামাল লুট ও মৎস্য ঘেরের নির্মানকৃত বাসা ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এবিষয়ে আশাশুনি থানায় ভুক্তভোগী নুরনাহার বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
জানাগেছে, শুক্রবার রাত দুটোর সময় ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আনারুল মোল্যা নেতৃত্বে সংঘবদ্ধ ১০ থেকে ১২জন তুয়ারডাঙ্গার মুরারীকাটি বিলে হাকিম মোল্যার পুত্র মুজিবর মোল্যার মৎস্য ঘেরে এ ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।
ভুক্তভোগী মুজিবর মোল্যা ও বাদীর এজাহার সুত্রে জানা যায়, গদাইপুর গ্রামের সিরাজুল মোল্যার তুয়ারডাঙ্গা মৌজার ২নং খতিয়ানের ১৬৮ দাগে ১০একর জমির মধ্যে ২একর ৬৬শতক জমি লীজ নিয়ে একটি মৎস্য ঘের করেন তিনি। তিনি একটা মামলার আসামী হওয়ায় আমার স্ত্রী তুয়ারডাঙ্গার মুরারীকাটি বিলে আমার মৎস্য ঘের দেখাশুনা করে। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রাত দুটোর দিকে ইউপি সদস্য আনারুল মোল্যার নেতৃত্বে রাতের আধারে আমার স্ত্রীর উপর তাদের কু-নজর পড়ে। তারা ঘেরের বাসায় অনাধিকার প্রবেশ করে ঘেরের,বেড়া বাসা ভাংচুর, মালামাল(স্ত্রীর কানের দুল সোনার,নগদ টাকা ও মাছা) বাবদ লক্ষাধিক টাকা লুট ও আমার স্ত্রীর শ্লীতাহানীর চেষ্টা করে। আমার স্ত্রীর ডাক চিৎকারে পাশ^বর্তী এলাকার লোকজন আসলে তার সটকে পড়ে। পরে স্থানীয়রা আমার স্ত্রীকে উদ্ধার করে। আমি আশাশুনি থানা পুলিশের কাছে ন্যায় বিচার চাই।
এছাড়াও একই গ্রামের মৃত হাবিব মোল্যার পুত্র বাপ্পি মোল্যার মৎস্য ঘেরের মালামাল(ইলেকট্রিক মটর,বাতি) বিগত দুদিন ধরে কে বা কাহারা রাতের কোন এক সময় লুটপাট করে নিয়ে গেছে বলে বাপ্পি মোল্যার পরিবার অভিযোগ করেছেন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আশাশুনি থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here