ছেলের বউকে নির্যাতনকে রক্ষা করতে এসে বাবা ছেলের হাতে ছুরিকাহত

0
40

বিশেষ প্রতিনিধি
ছেলের বউকে নির্যাতনের হাত থেকে রক্ষা করতে এসে বাবার বুকে ছেলে ছুরিকাঘাত করেছে। এ ঘটনায় পুলিশ সন্ত্রাসী ছেলে শেখ মতিউর রহমান ওরফে মুনিমকে রক্ত মাখা ছোরাসহ গ্রেফতার করেছে। ঘটনাটি যশোর শহরের শংকরপুর ইসাহক সড়কের পশ্চিমাংশে। স্বামীকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় স্ত্রী মোছাঃ মাছুমা খাতুন বাদি হয়ে ছেলের বিরুদ্ধে কোতয়ালি মডেল থানায় বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে মামলা করেছেন। পুলিশ সন্ত্রাসী ছেলে মনিমকে শুক্রবার আদালতে সোপর্দ করেছে।

মাছুমা খাতুন বাদি হয়ে মামলায় উল্লেখ করেছেন, তার ছেলের বউ কারিমা আফরোজ ওরফে কেয়াকে তার ছেলে প্রায় সময় শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে আসছে। বুধবার দিবাগত গভীর রাত সোয়া ১ টায় তার ঘরে স্ত্রীকে দরজা দিয়ে মারপিট শুরু করে। ছেলের বউয়ের চিৎকারে শ্বশুর শেখ মশিয়ার রহমান (৬৩) ও শ্বশুড়ী মাছুমা খাতুন রক্ষা করতে ছেলের ঘরের দরজা এসে দরজা খুলতে বলে।

ওই রাতে ছেলে শেখ মতিউর রহমান মুনিম তার বাবা ও মাকে দরজার কাছ থেকে দ্রুত চলে যেতে বলে। না সরলে খুন জখমের হুমকী দেয়। এক পর্যায় বাবা শেখ মশিয়ার রহমান ছেলের হুমকীকে উপেক্ষা করে ছেলের বউকে রক্ষার জন্য দরজা খুলতে বললে ছেলে ওই রাতে দরজা খুলে বাবা শেখ মশিয়ার রহমানের বুকে ধারালো ছোরা দিয়ে আঘাত করে। ছুরির আঘাতে বাবা মাটিয়ে লুটে পড়লে স্ত্রী মাছুমা খাতুন উদ্ধার করে ওই রাতে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

অবস্থা খারাপ হওয়ায় তাকে হাসপাতালের চিকিৎসক উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। এ ঘটনায় স্ত্রীর দায়ের করা মামলায় কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশ সন্ত্রাসী ও কুলাঙ্গার ছেলে শেখ মতিউর রহমান ওরফে মুনিমকে বৃহস্পতিবার রাতে গ্রেফতার করে। পরে তার দেখানো মতে ঘরের মধ্যে রাখা রক্ত মাখা ছোরা উদ্ধার করে। পরে মুনিমকে শুক্রবার আদালতে সোপর্দ করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here