শার্শায় বিধবা নারী বাড়িতে অবরুদ্ধ!

0
76

বেনাপোল প্রতিনিধি
শার্শায় ষাটোর্ধ্ব এক বিধবা নারীর বাড়ির রাস্তা বন্ধ করে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। প্রায় একটানা তিনমাস তার জমি স্বল্প দামে ক্রয় করবে বলে তাকে কৌশলে তারই সৎ ভাইয়েরা রাস্তা বন্ধ করে দেয়। ছবিরন নামে এই বিধবা নারী তার সৎ ভাই হামিদ গাজী, সামাদ গাজী, সাত্তার ওরফে ডাকাত সাত্তার এর নামে বিচার চেয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরছে। রাস্তা বন্ধর কারনে সে বাড়ি থেকে তার পরিবার পরিজন এর সদস্যদের নিয়ে বের হতে পারছে না। এ বিষয়ে ছবিরন শার্শা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে বলে তিনি জানান।
শার্শার বাগআঁচড়া আমতলা গ্রামের বেলায়েত গাজির তিন স্ত্রীর মোট ২৩ জন ছেলে মেয়ে। এর মধ্যে বড় স্ত্রীর ৮ ছেলে। তারাই সু-কৌশলে ছবিরনকে বসত ভিটা থেকে উচ্ছেদ এবং কম দামে তার জামি ক্রয়ের জন্য রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে। ছবিরন জানায় তার ভাইদের সে মাদক ব্যবসায় সহায়তা না করায় তার বাড়ি থেকে বের হওয়ার রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে। তার পিতা বেলায়েত গাজি বিগত ৩০ বছর আগে তাকে এই জমিটি লিখে দিয়ে যান। এবং পাশের জমি ভাইদের লিখে দেয়। সকলের পথও তিনি নির্দিষ্ট করে দিয়ে যান। এখন তার সৎ ভাই হামিদ গং তাকে উচ্ছেদ করার জন্য পরিকল্পনা করে বাড়ির চারিপাশ ঘিরে দিয়েছে।
এ বিষয় আদালতে মামলা করলে স্থানীয় বাগআঁচড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ইলিয়াছ কবির বকুল মামলা তুলে নিতে বলে। তিনি বলেন মামলা তুলে নিলে হামিদরা তাকে রাস্তা দিবে। এরপর মামলা তুলে নেওয়ার পর রাস্তাটি আরো জব্দ করে ঘিরে দেয়। তিনি মঙ্গলবার শার্শা উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর কাছে বিচার চেয়ে একটি আবেদনও দিয়েছেন।
স্থানীয় রাজ্জাক গাজী জানায় হামিদরা ৮ টি ভাই এলাকায় বিশৃঙ্খল জীবন যাপন করে। তারা ডাকাতি মাদক ব্যবসা ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত। ওই ৮ ভাইয়ের পরিবার এর সদস্যরা এলাকায় সকল ধরনের অপকর্ম করে থাকে। ছবিরন তাদের বিমাতা বোন হওয়া সত্বেও তার জমির উপর হামিদ এর নজর পড়েছে। স্বল্প দামে জমি ক্রয় করার জন্য তারা বিধবা নারীর রাস্তা বন্ধ করে এলকায় সমালোচিত হয়েছে।
স্থানীয় বাগআঁচড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ইলিয়াছ কবির বকুল এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন এরকম ঘটনা আমার মনে পড়ছে না। তবে উভয়ে আসলে হয়ত আমার বিষয়টি মনে পড়তে পারে।
শার্শা উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর নিকট বিচার চেয়ে আবেদন দিয়েছে কিনা জানতে চেয়ে একাধিক বার ফোন করলে তিনি ফোন ধরেন নাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here