শিক্ষার্থী রুবেলের মৃত্যুতে যবিপ্রবি উপাচার্যের শোক

0
60

সত্যপাঠ রিপোর্ট
সড়ক দুর্ঘটনায় যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) ফিজিওথেরাপি অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন (পিটিআর) বিভাগের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী রুবেল-এর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন।
গত রোববার রাত আনুমানিক পৌনে ৯টায় ঢাকার জিরানি বাজার এলাকায় ট্রাক চাপায় তিনি ইন্তেকাল করেন বলে রুবেলের শিক্ষক ও সহপাঠীরা জানিয়েছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। তিনি বিশ^বিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ সেশনের শিক্ষার্থী ছিলেন। তাঁর গ্রামের বাড়ি ঢাকার সাভারের আশুলিয়ায় এলাকায়। তাঁর অকাল মৃত্যুতে যবিপ্রবির শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
এক শোক বাণীতে অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন বলেন, ফিজিওথেরাপি অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন (পিটিআর) বিভাগের প্রথম ব্যাচের একটি কোর্স নেওয়ার সুবাদে আমি তাঁর সরাসরি শিক্ষক ছিলাম। শ্রেণিকক্ষে ছেলেটি অত্যন্ত প্রাণবন্ত ছিল। গত কয়েক মাসে সড়ক দুর্ঘটনা যবিপ্রবির বেশ কয়েক জন মেধাবী শিক্ষার্থীর অকাল প্রয়ান হয়েছে অথবা মারাত্মক আহত হয়ে তাঁরা চিকিৎসাধীন। সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। তা না হলে সড়কে মৃত্যুর মিছিল ঠেকানো যাবে না। শোক বার্তায় তিনি আরও বলেন, বিশ^বিদ্যালয়ের প্রতিটি শিক্ষার্থী আমার কাছে সন্তানসম। সড়ক দুর্ঘটনায় বলি হয়ে আমার সন্তানের এভাবে চলে যাওয়া মেনে নেওয়া যায় না। আমি রুবেলের রূহের মাগফিরাত কামনা করছি এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পিতা-মাতা, পরিবার-পরিজন, দীর্ঘদিনের শিক্ষক-সহপাঠীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।
এদিকে রুবেলের অকাল প্রয়াণে যবিপ্রবির শিক্ষক সমিতি, কর্মকর্তা সমিতি ও কর্মচারী সমিতি গভীর শোক প্রকাশ করেছে। একইসঙ্গে বিশ^বিদ্যালয়ের ফিজিওথেরাপি অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন বিভাগ, ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা দপ্তর, যবিপ্রবি ছাত্রলীগ, সাংবাদিক সমিতিসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনও তাঁর অকাল প্রয়াণে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here