যশোরে চাঁদার দাবিতে অবৈধ আটক করে মারপিট চাঁদা স্বরুপ দুই হাজার কাটা ছিনতাই  তিন চাঁদাবাজ সন্ত্রাসী গ্রেফতার

0
8

 

বিশেষ প্রতিনিধি

চাঁদার দাবিতে শহরতলী নীলগঞ্জ সাহা পাড়া ভৈরব নদীর পূর্ব পাড়ে এক পাইপ মিস্ত্রিকে গতিরোধ করে চিহ্নিত চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসীরা গতিরোধ করে অবৈধ আটক করে মোটা অংকের চাঁদাদাবি করে নগদ ২ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে। লোকজনের সহায়তায় পুলিশ ৩ চাঁদাবাজ সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে,যশোর সদর উপজেলার নীলগঞ্জ সাহাপাড়ার আব্দুল মান্নানের ছেলে আব্দুল কাদের ওরফে টাক কাদের,একই এলাকার রুস্তম গাজীর ছেলে আব্দুল্লাহ হোসেন জয় ও ম ৃত আব্দুল কাশেমের ছেলে রকি হোসেন। এ সময় তাদের সহযোগী শিবলু, বাবলু ওরফে লম্বা বাবলুর ছেল সাকিব ও রবিনসহ অজ্ঞাতনামা ৭/৮জ পালিয়ে গেছে। এ ঘটনায় চাঁদাবাজদের সন্ত্রাসের শিকার যশোরের কেশবপুর উপজেলার বড় পাতরা গ্রামের বর্তমানে সদর উপজেলার নীলগঞ্জ সাহারপাড়ার আবুল হোসেন এর বাড়ির ভাড়াটিয়া হযরত আলীর ছেলে ইউসুফ আলী বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা করেন।

মামলায় ইউসুফ আলী বলেন, তিনি পাইপ লাইনের কাজ করেন। গত বৃহস্পতিবার ১১ মার্চ ইউসুফ আলী পাইপ লাইনের কাজ শেষ করে ভাড়া বাড়িতে ফিরছিল। সন্ধ্যা সোয়া ৭ টায় নীলগঞ্জ সাহাপাড়া ভৈরব নদীর পূর্ব পাড়ে জনৈক আকবর আলীর বাড়ির নিকটে পৌছালে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ওৎ পেতে থাকা উল্লেখিত আসামীরা তার গতিরোধ করে। এসময় ইউসুফ আলীর হাত পা বেঁধে অবৈধ  ্আটক করে ১লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদাবাজরা তাকে বলে অত্র এলাকায় কাজ করতে হলে তাদেরকে ১লাখ টাকা চাঁদা দিতে হবে। চাঁদা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে চাকু ঠেকিয়ে  লোহার রড ও লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ী মারপিট করে। চাঁদাবাজরা ইউসুফ আলীর মাধ্যমে তার প্রতিবেশী ভাড়াটিয়া বড় ভাই রিপন হোসেনের মোবাইল নাম্বারে ফোন করে জানান ইউসুফ আলী তাদের হেফাজতে রয়েছে। তাকে বাঁচাতে হলে বিকাশ নাম্বারে ১লাখ টাকা চাঁদা দিতে হবে।  এই বলে ইউসুফ আলীর পকেটে থাকা নগদ ২ হাজার টাকা চাঁদা স্বরুপ কেড়ে নেয়। রিপন হোসেন বিষয়টি পুলিশের সাথে যোগাযোগ করে। পরবর্তীতে রাত ১১ টার পর পুলিশের সহায়তায় আব্দুল কাদের ওরফে টাক কাদের,আব্দুল্লাহ হোসেন জয় ও রকি হোসেনকে গ্রেফতার করে। তাদের সহযোগী উল্লেখিত আসামীরা  দৌড়ে পালিয়ে যায়। পুলিশ গ্রেফতারকৃতদের শুক্রবার ১২ মার্চ আদালতে সোপর্দ করে।#

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here