লেদ মিস্ত্রি বাচ্চু গাজী হত্যার ঘটনায় স্ত্রীর মামলা

0
9

বিশেষ প্রতিনিধি
সদর উপজেলার খোলাডাঙ্গা মুন্সিপাড়ার ধান ক্ষেতে বাচ্চু গাজীর লাশ উদ্ধারের ঘটনায় তার স্ত্রী মোছাঃ সালমা বেগম বাদি হয়ে বুধবার রাতে কোতয়ালি মডেল থানায় অজ্ঞাতনামা আসামীর বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেছেন। পুলিশ হত্যাকান্ডের মোটিভ উদঘাটন ও হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত কাউকে গত ২৪ ঘন্টায় গ্রেফতার করতে পারেনি।
যশোর সদর উপজেলার কামালপুর গ্রামের বাসিন্দা নিহত বাচ্চু গাজীর স্ত্রী মোছাঃ সালমা বেগম মামলায় বলেন, তিনি ও তার স্বামী বাচ্চু গাজী ও বড় মেয়ে আত্তফা, ছোট মেয়ে নাজিফাকে নিয়ে পিতার বাড়ী যশোর কোতয়ালি মডেল থানাধীন মোবারক কাঠি গ্রামস্থ চাকলাদার পাম্পের দক্ষিন পাশে বসবাস করি। স্বামী বাচ্চু গাজচী মুড়–লী মোড়ে জনৈক নিজাম উদ্দিনের কারখানায় লেদ মেশিনের কাজ করে। গত ৯ মার্চ মঙ্গলবার সকার ৯ টায় বাচ্চু গাজী একটি মামলায় হাজিরা দিতে যশোর কোর্টে আসে। কোর্টে হাজিরা শেষে বিকেল সাড়ে ৫ টায় বাড়িতে ফিরে এসে খাওয়া দাওয়া শেষে সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় পুনরায় বাড়ি হতে সে বের হয়। ৯মার্চ দিবাগত রাতে বাড়িতে ফিরে না আসায় বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুজি শুরু করে কোথাও পাওয়া যায়নি। স্বামী বাচ্চু গাজীর ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে ফোন করলে বন্ধ পাওয়া যায়। ১০ মার্চ সকাল ১০ টায় সালমা বেগমের পিতার বাড়িতে যেয়ে জানায়, বাচ্চু গাজীর মরদেহ খোলাডাঙ্গা মুন্সিপাড়া জনৈক সামছুল আলম এর ধান ক্ষেতে পড়ে রয়েছে। বাচ্চু গাজীর লাশ দেখে সনাক্ত করে। বাচ্চু গাজীর গলার বাম পাশে, বুকের নিচে বাম পাশে, পিঠে, বাম ঘাড়ে, বাম হাতে ধারালো অস্ত্রের গুরুতর রক্তাক্ত জখম দেখতে পাই। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন। হাসপাতালে বাচ্চু গাজীর লাশের ময়না তদন্ত সম্পন্নর পর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে। সালমা বেগমের ধারনা ৯ মার্চ মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টা হতে ১০ মার্চ বুুধবার সকাল ৮ টার মধ্যে যে কোন সময় অজ্ঞাতনামা আসামীরা পরিকল্পিতভাবে উক্ত স্থানে নিয়ে বাচ্চু গাজীকে আঘাত করে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখে গেছে। হত্যাকান্ডের ব্যাপারে কোতয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ তাজুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, স্পেসেফিক কোন তথ্য নাই। এমটি কেউ গ্রেফতার হয়নি। তবে এই নিয়ে কাজ করা হচ্ছে তথ্য পেলে জানানোর কথা তিনি জানান। অপরদিকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস এস আকিকুল ইসলামের কাছে তার মুঠো ফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান দুই মিনিট পর ফোন দিয়ে জানাচ্ছি এই বলে তিনি ফোন কেটে দেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here