করোনা: কোনদিকে ছুটছে বাংলাদেশ

0
107

আমিরুল আলম খান:

গত ২৪ মে, ২০২০ বাংলাদেশে করোনায় মৃত্যু সংখ্যা মোট ৫০০ ছাড়ায়। দেশে প্রথম করোনা শনাক্ত হবার পর আজ ২৬ মে ৭৯ দিন পার হচ্ছে। পৃথিবীর অন্যান্য দেশে দু মাসের মধ্যে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা কমতে শুরু করলেও বাংলাদেশে এখনও করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। নিচের তালিকাটি তৈরি করা হয়েছে করোনা বিষয়ে সরকারি তথ্যের বরাতে ওয়ার্ল্ডওমিটার ডট ইনফোর আপডেট করা ২৬ মের ডাটা ব্যবহার করে।

এক নজরে বাংলাদেশে কোভিড-১৯

২৫ মে, ২০২০

­­ বিষয়

সংখ্যা/ পরিমাণ

বিশ্বে অবস্থান

প্রতি বর্গ কিলোমিটারে জনবসতি

১২৬৫ জন

২.১১%

মোট জনসংখ্যা

১৫৬০ লক্ষ

করোনায় মোট আক্রান্ত

৩৫,৫৮৫

২৫

মোট মারা গেছে

৫০১

৩৬

সেরে উঠেছে

৭৩৩৪

৩৬

চিকিৎসাধীন

২৭,৭৫০

১২

শংকাজনক

মোট স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে

২৫৩,০৩৪

প্রতি ১০ লাখ মানুষের মধ্যে পরীক্ষা করা হয়েছে

১৫৩৮

১৫৩

প্রতি ১০ লাখ মানুষের মধ্যে আক্রান্ত

২১৬

১২০

প্রতি ১০ লাখ মানুষের মধ্যে মারা গেছে

১২৫

প্রথম করোনা শনাক্ত

৮ মার্চ

প্রথম দিন থেকে এ পযর্ন্ত কত দিন

৭৮ দিন

করোনায় প্রথম মৃত্যু

১৮ মার্চ

প্রথম মৃত্যুর তারিখ থেকে কত দিন

৬৯ দিন

একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর তারিখ

২৪ মে

একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর সংখ্যা

২৮

১৮

Source: worldometer.info

আমরা কোন দিকে যাচ্ছি তার একটা ছবি পেতে ওয়ার্ল্ডওমিটার ডট ইনফোর তৈরি করা বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর দুটি গ্রাফও এখানে ব্যবহার করা হয়েছে।

এই তথ্য আমাদের এমন অনেক কিছু জানান দেয় যা আমরা কল্পনাও করতে পারি না। যদিও সরকারি এসব তথ্য নিয়ে মানুষের মনে বিস্তর সন্দেহ আছে।

করোনা সংক্রমণে জনসংখ্যায় পৃথিবীর অষ্টম স্থান অধিকারী বাংলাদেশের অবস্থান এখন পর্যন্ত ২৫তম। প্রতি ১০ লাখ মানুষের মধ্যে বাংলাদেশে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা মাত্র ২১৬ জন। সে হিসেবে করোনা সংক্রমণে বাংলাদেশের অবস্থান ১২০তম স্থান। মনে হতে পারে, সেটা বেশ স্বস্তির। কিন্তু এই অবস্থান কর্পূরের মত উবে যায় যখন আমরা দেখি, করোনা পরীক্ষায় বাংলাদেশের অবস্থান ১৫৩! বিপুল জনসংখ্যার হিসেবে আমাদের করোনা শনাক্তে ঘাটতি কতটা ভয়াবহ তা বোঝা যায় যখন এটা দেখি যে, প্রতি ১০ লাখ মানুষের হিসেবে বাংলাদেশে করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে মাত্র ১৫৩৮ জনকে। যেহেতু পরীক্ষাই করা হয়েছে খুবই কম মানুষকে তাই বাংলাদেশে করোনার আসল ছবি পাওয়া যাচ্ছে না।

সরকারি বয়ানের আরও একটি ভয়াবহ ছবি ফুটে ওঠে যখন আমরা দেখি, মাত্র একজন শংকাজনক বলে বর্ণনা করারযে পরদিনই মারা গেছে ২৮ জন! অতিরিক্ত মারা যাওয়া এই ২৭ জন সম্পর্কে আমাদের স্বাস্থ্য দপ্তর তাহলে কিছুই জানত না কেন!?

ঈদ সামনে রেখে সরকারের বিভিন্ন সিদ্ধান্তে সমন্বয়হীনতা এবং দোলাচল পষ্ট হয়ে গেছে। সংক্রমণের নাভিকেন্দ্র শহর ছাড়িয়ে গেটিা দেশে ছড়িয়ে পড়বে বলে স্বাস্থ্য পন্ডিতদের আশংকা হররোজ মিডিয়ায় প্রচারিত হচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা না মেনে চলার মাশুল গুনেছে ইউরোপের উন্নত স্বাস্থ্য পরিসেবার দেশগুলি। সবচেয়ে ভয়ংকর পরিস্থিতি মোকাবেলা করছে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র। এখন যোগ হয়েছে ব্রাজিল। বামপন্থী সরকার হটিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের মদদে ব্রাজিলে এখন চরম ডানপন্থী সরকার। তাদের আদর্শ যুক্তরাষ্ট্র। আমাদেরও কি তাই?


বাংলাদেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার এক ভয়াবহ ছবি জনগণের সামনে তুলে ধরেছে করোনা। সে সব বিষয় নিয়ে গভীর বিশ্লেষেণ করা দরকার। এবং দরকার এখনই সেসব নিরসনের কার্যকর উদ্যোগ নেয়া।


Warning: A non-numeric value encountered in /home/njybpvbk/public_html/wp-content/themes/Newspaper/includes/wp_booster/td_block.php on line 1009

Warning: Use of undefined constant TDC_PATH_LEGACY - assumed 'TDC_PATH_LEGACY' (this will throw an Error in a future version of PHP) in /home/njybpvbk/public_html/wp-content/plugins/td-composer/td-composer.php on line 109

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here