ফিরে আসে বার বার

0
65

ফিরে আসে বার বার

ফিরে আসে বার বার
এবং মানুষেরা অবস্থান করছিল যার যার অন্তর্কক্ষে
তারা অনেকেই পঠন পাঠনে ছিল মনোযোগী
তারা কান পেতে মগ্ন ছিল শ্রবনে গুরুত্বপূর্ণ কথোপকথন
এবং কেউ কেউ ক্লান্ত শরীরটাকে এলিয়ে
দিয়েছিল আত্মবিলাসী বিশ্রামে
কেউবা শরীর গঠনে ছিল মনোযোগী বিলক্ষণ
আবার কেউ কেউ ছিল শিল্পকলা অথবা ক্রীড়ায় মশগুল
এবং অনেকেই শিখে নিতে আগ্রহী ছিল
নতুন জীবনের বৈচিত্রময় পথঘাট
তারা মাঝে মধ্যে থমকে দাঁড়িয়ে
শুনে নিচ্ছিল গভীর মনোযোগে
ভবিষৎ নবজীবনের বিচিত্র ভাঙাগড়া।
 কেউবা ছিল ধ্যানমগ্নতায় গম্ভীর
কেউবা নিষ্ঠাবান সন্তের মতো প্রার্থনায় নিবেদিত
কেউ কেউ তাদের ছায়াদের সাথে
দেখাসাক্ষাতে ছিল প্রীতিময় প্রিয়জন
এবং এবার মানুষ ভিন্ন পথে
খুঁজে নিল নতুন অর্থ জীবনের
আর সেখানেই পাওয়া গেল স্বস্তির সন্ধান
এবং সেখানে মানুষের মধ্যে
না ছিল কোনো মূর্খতা
ছিল না কোনো ভয়ংকর হিংস্রতা
ছিল না অর্থহীন আচরণ আর হৃদয়হীনতা
তখনই পৃথিবী ক্রমশ: হলো উৎকন্ঠা মুক্ত
এবং যখন বিপদ নেমে গেল মাথা থেকে
মানুষ আপতশান্তির আশ্বাসে বুক বাঁধলো
তখনই মানুষ জীবনহারাদের জন্যে
কায়মনোবাক্যে প্রাণের সকল অর্ঘ দিয়ে
সেইসব হতভাগাদের আত্মার শান্তি কামনা করলো
তারপর তারা এক নবতর বিশ্বকে আলিঙ্গন করলো
নতুন আশা নতুন প্রত্যাশা নতুন স্বপ্ন
নতুন পৃথিবীর স্বপ্নে বিভোর জীবনের নতুন পাঠ
সেই পুরানো পৃথিবীকে নবনির্মাণে সাঁজিয়ে মানুষ পুণর্বার শান্তির ঠিকানায় পৌঁছালো

 

কিছু কথা: জীবন সংহারী করোনা শুধু দুই হাজার বিশ খ্রিষ্টাব্দে না – শতাব্দির পর শতাব্দি – যুগের পরে যুগ – বছরের পরে বছর বিবিধ বর্ণে নানাবেশে জীবন সংহারে ভয়ংকর দানবীয় – মৃত্যুক্রিয়া সম্পাদন করে চলেছে। মানুষের জীবন নিয়ে এই মহাব্যাধির মৃত্যুক্রিয়া মানুষের সাহিত্য জগতকেও ভীষণভাবে আলোড়িত করেছে। পৃথিবীর নানা প্রান্তের সৃজনশীল মানুষেরা গদ্যে-পদ্যে সৃষ্টিশীল সাহিত্য রচনা করে চলেছেন।এ ধরনের সাহিত্যকে আমরা Corona Literature বলে অভিহিত করতে পারি।এরকম একটি কবিতা (Corona Poem)২০২০ খ্রিস্টাব্দের প্রথম দিকে অল্প সময়ের মধ্যে বিশ্বব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।এই কবিতার শিরোনাম This is Timeless…………
কিন্তু সমস্যা হচ্ছে যে, কিছু ব্যক্তি এই কবিতাটি ২০২০ খ্রিস্স্টব্দে লেখা হয়নি বলে দাবী করছে। তাদের বক্তব্য হচ্ছে, ” This is Timeless…………….. “শীর্ষক কবিতাটি ১৮৬৯ খৃঃ রচিত হয়েছিল এবং ১৯১৯ খৃঃ ভয়ংকর ফ্লু মহামারীর সময়ে পুনঃমুদ্রিত হয়। এই কবিতটি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য অনলাইনে কবিতাটির ইংরেজি শিরোনামে খোঁজ করলে পাওয়া যাবে।
যাহোক, আমার অনুবাদে মুল কবিতার শিরোনাম ব্যবহার করেছি–কবির নাম উল্লেখ করিনি।কবিতটি যেই লিখুক না কেন তাকে অসংখ্য ধন্যবাদ একারনে যে,বর্তমান পরিস্থিতিতে এই কবিতাটি মানুষের মনে অসামান্য সাহস ও আশা জাগাবে।এ কবিতার বিষয়বস্তু বর্তমান প্রেক্ষাপটে স্পষ্টভাবে পাঠকদের উৎসাহিত করবে।করোনা সংকটে কিছু মানুষের আইসলোশনে “গৃহবন্দী” দিন কাটাতে হচ্ছে। এবং এই অবস্থায় তাদের মধ্যে যে ইতিবাচক মনোভঙ্গির বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে তা নিঃসন্দেহে স্মরণযোগ্য ঘটনার ইতিহাস হয়ে থাকবে।
কবিতাটির অর্ন্তগত অর্থবাচকতার মধ্যে আমরা জীবন সিম্ফনি খুঁজে পাই।

অনুবাদক: মৃন্ময় মণ্ডল


Warning: A non-numeric value encountered in /home/njybpvbk/public_html/wp-content/themes/Newspaper/includes/wp_booster/td_block.php on line 1009

Warning: Use of undefined constant TDC_PATH_LEGACY - assumed 'TDC_PATH_LEGACY' (this will throw an Error in a future version of PHP) in /home/njybpvbk/public_html/wp-content/plugins/td-composer/td-composer.php on line 109

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here