যবিপ্রবি ল্যাবে আরও ২৭ করোনা রোগী শনাক্ত

0
208
যবিপ্রবি করোনা আপডেট
সত্যপাঠ ডেস্ক:যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (যবিপ্রবি) করোনাভাইরাস পরীক্ষায় আরও ২৭ রোগীকে শনাক্ত করা হয়েছে। চার জেলার ৬৬টি নমুনা পরীক্ষা করে এ ২৭ রোগী শনাক্ত হয়।
এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি যশোর জেলায় ১৪ জন। শনিবার পরীক্ষা শেষে রোববার সকালে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়। এ নিয়ে যবিপ্রবির জিনোম সেন্টারে ৬৪ জন করোনা রোগী শনাক্ত হলো।
যবিপ্রবি জিনোম সেন্টারের সহযোগী পরিচালক ও অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. ইকবাল কবীর জাহিদ জানান, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবে শনিবার ৮ম দিনে চার জেলার ৬৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৭ জন কোভিড-১৯ পজিটিভ রোগী শনাক্ত হয়েছে।
এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি যশোর জেলায় ১৪ জন রোগী। ৪২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে এই রোগী শনাক্ত হয়।
এ ছাড়া ঝিনাইদহ জেলায় ১৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে আটজন করোনা রোগী পাওয়া গেছে। আর নড়াইলে চারজনের নমুনা পরীক্ষা করে তিনজন এবং মাগুরায় পাঁচজনের নমুনা পরীক্ষা করে দুজন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে।
এর আগে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবে শুক্রবার ৭ম দিনের নমুনা পরীক্ষায় ১২ জন কোভিড-১৯ পজিটিভ রোগী শনাক্ত হন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ছিল যশোর জেলায় ৯ জন রোগী।
এ ছাড়া ঝিনাইদহ জেলায় দুজন ও নড়াইলে একজন করোনা রোগী শনাক্ত হন। এদিন পাঁচ জেলা থেকে ৯৫টি নমুনা পাঠানো হয়েছিল।
গত বুধবার ষষ্ঠ দিনের নমুনা পরীক্ষায় ১২ জন কোভিড-১৯ পজিটিভ রোগী শনাক্ত হন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি চুয়াডাঙ্গা জেলায় ছয়জন রোগী। এ ছাড়া যশোরে দুই, কুষ্টিয়ায় দুই, মেহেরপুরে এক ও মাগুরায় এক করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছিল। গত বুধবার ৭ জেলা থেকে ৮৪টি নমুনা পাঠানো হয়। এদের মধ্যে থেকে পরীক্ষার পর ওই রোগী শনাক্ত হয়েছে।
আর গত মঙ্গলবার ৫ম দিনে যবিপ্রবি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় ১৩ জন কোডিভ-১৯ পজিটিভ রোগী শনাক্ত হয়। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ছিল নড়াইলে পাঁচজন। এদের মধ্যে চার চিকিৎসক ছিলেন।
এ ছাড়া যশোরে চার, কুষ্টিয়ায় চার, মাগুরা ও মেহেরপুরে একজন করে করোনা রোগী শনাক্ত হয়। সব মিলিয়ে এখানে ৬৪ রোগী শনাক্ত হলো।
ফলে এ পর্যন্ত যশোরে ৩০ জন, ঝিনাইদহে ১০, নড়াইলে ৯, চুয়াডাঙ্গায় ছয়, মাগুরা ও কুষ্টিয়ায় চারজন করে এবং মেহেরপুরে দুজন রোগী শনাক্ত হলো। যবিপ্রবিতে সাত জেলার নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here