যশোরে গত তিনদিনে অতিরিক্ত মদপানে ১০ জনের মৃত্যুর ঘটনায় পুলিশ নড়ে চড়ে বসেছে

0
110

এম আর রকি : যশোরে বিভিন্নভাবে লাগাতারভাবে গত তিন দিনে মদ পানে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। মদপানে মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় দারুণ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ প্রশাসন খতিয়ে দেখার জন্য অভিযানে নামছেন।
হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, যশোর সদর উপজেলার শেখহাটি কালীতলা এলাকার আরশাদ আলীর ছেলে শাহিন (৩৮) শুক্রবার রাত ১২টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়। শনিবার ভোর ৪টায় তার মৃত্যু হয়। মদপানে তার মৃত্যু হয়েছে বলে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছেন।
যশোর কোতয়ালি থানার ওসি (ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড কমিউনিটি পুলিশিং) সুমন ভক্ত সাংবাদিকদের জানান, যশোর শহরের বেজপাড়ার মাহমুদুল হক বিশারতের বাড়ির ভাড়াটিয়া পতিতাপল্লীর ছেলে নান্টুর ঘরের মধ্য থেকে শুক্রবার দুপুরে মৃত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এসময় তার ঘর থেকে পেথেডিনের খালি অ্যাম্পুল পাওয়া যায়। সে শহরের একটি মদের দোকানে কর্মচারী ছিলেন।
শুক্রবার ২৪ এপ্রিল সন্ধ্যায় যশোরের ২৫০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ঝিকরগাছা উপজেলার কাটাখালি গ্রামের সাহেব আলী (৬০) নামে এক ব্যক্তি। পুলিশ জানায়, শুক্রবার বিকাল ৫টায় সাহেব আলী নিজ বাড়িতে মদ সেবন করার সময় অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে যশোরের ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সন্ধ্যা ৭টায় তিনি মারা যান।
যশোর শহরতলীর ঝুমঝুমপুর মান্দারতলা এলাকার শাখাওয়াতের ছেলে চিহ্নিত গাঁজা ব্যবসায়ী ফজলুর রহমান ওরফে চুক্কি বৃহস্পতিবার বিকোল ৫টায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। স্থানীয়রা জানান, শহর থেকে মিন্টু নামে একজন তাকে দেশি মদ এনে দিতেন। অতিরিক্ত মদ পানের কারণে বৃহস্পতিবার দুপুরে চুক্কি অসুস্থ হয়ে পড়েন। হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার ৫টায় তার মৃত্যু হয়েছে।
যশোর শহরের ঘোপ নওয়াপাড়া রোডের ফিরোজের বাড়ির ভাড়াটিয়া মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক চিশতির ছেলে শরফুদ্দিন মুন্না ওরফে মনি বাবু ২৩এপ্রিল বৃহস্পতিবার ভোরে হাসপাতালে মৃত্যু হয়। হাসপাতালের চিকিৎসক আজিজুর রহমান জানান, মদের বিষক্রিয়ার কারণে মনি বাবুর মৃত্যু হয়েছে। তার স্ত্রী হিরা খাতুন সাংবাদিকদের জানান, মঙ্গলবার মনিবাবু মদ পান করে অসুস্থ হয়। বুধবার রাতে হাসপাতালে নিয়ে গেলে বৃহস্পতিবার ভোরে তার মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে শহরের ঘোপ নওয়াপাড়া রোডের কুদ্দুস সিকদারের ছেলে সাবুর (৪৬) নামে আরো এক যুবকের মৃত্যু হয়। তার পরিবার জানায়, বুধবার সে মনি বাবুসহ একটি গ্রুপ অন্যান্য দিনের ন্যায় একসাথে মদ পান করেছিল। যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সাবুর মারা যায়। যশোর শহরের বারান্দী মোল্যাপাড়ার বাসিন্দা এবং মদের দোকানের কর্মচারী আব্দুর রশিদ বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার দিকে অসুস্থ হয়ে পড়েন। পতিতালয় সামনে থেকে তাকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করার পর তার মৃত্যু হয়।
বৃহস্পতিবার রাতে সদর উপজেলার চুড়ামনকাঠি ইউনিয়নের ছাতিয়ানতলার আবু বক্করের ছেলে আক্তারুজ্জামান(৪৫) নিজ বাড়িতে মদপানের পর মারা যান। শুক্রবার সকালে পরিবারের সদস্যরা তড়িঘড়ি করে তাকে দাফন করে দেন। শুক্রবার বিকালে মনিরামপুরে মোহনপুর গ্রামের প্রফেসর আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে মোমিন (৪২) বিষাক্ত স্প্রীট পানে মারা যান। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে মুক্তার আলী (৪৫) আরো এক ব্যক্তি মারাযান। তিনি মোহনপুরের আবুল কাশেমের ছেলে। মনিরামপুর থানার ওসি রফিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, মোমিনের বাড়িতে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। তার পরিবারের দাবি সে অসুস্থ ছিলো। আর মুক্তার আলীর মৃত্যুর খবর তার জানা নেই।
অপরদিকে, শহরের মাড়–য়াড়ী মন্দির সংলগ্ন পতিতালয়ের সামনে গড়ে ওঠা মদের দোকান্দার মাহমুদুল হাসানের বাড়িতে গভীর রাতে কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে হাসানের স্ত্রী পতিতা সর্দারনী ছোট পাচি ও তার ছেলেকে গ্রেফতার করে। কোতয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মনিরুজ্জামান জানান, সাবুর পরিবার থেকে বলা হয়েছে সে লিভার রোগের কারণে মারা গেছে। যশোরে মদ পান করে মৃত্যু সংক্রান্ত কেউ কোন অভিযোগ করেননি। তবে শনিবার দুপুরে মনি বাবুর স্ত্রী হিরা খাতুন বাদি হয়ে মাহমুদুল হাসানসহ অজ্ঞাতনামা আসামী উল্লেখ করে এজাহার দায়ের করার প্রস্তুতি গ্রহন করেছেন। এ ব্যাপারে যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বিষয়টা আমারা জেনেছি। এবিষয়ে খোজ খবর নেয়া হচ্ছে। যারা এই ভেজাল মদের কারবার করছে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। দায়িত্ব অবহেলার কারণে সংশ্লিষ্ট পুলিশের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।


Warning: A non-numeric value encountered in /home/njybpvbk/public_html/wp-content/themes/Newspaper/includes/wp_booster/td_block.php on line 1009

Warning: Use of undefined constant TDC_PATH_LEGACY - assumed 'TDC_PATH_LEGACY' (this will throw an Error in a future version of PHP) in /home/njybpvbk/public_html/wp-content/plugins/td-composer/td-composer.php on line 109

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here