বিপদে আমি না যেন করি ভয়

0
142
  1. করোনা নিয়ে আতংক নয়, দরকার সংহতি, সতর্কতা

আমিরুল আলম খান
তামাম দুনিয়া এভাবে একসাথে বন্দিশালা হয়ে ওঠে নি কখনো। আর দুনিয়ার তাবৎ মানুষ এত ভয়ও পায় নি কখনও। দু’ দু’টো বিশ্বযুদ্ধেও মানুষ এমন ইঁঁদুরের মত নিজেকে স্বেচ্ছাবন্দি করে নি। জীবন থেমে যায় নি। অতীতের কোন মহামারীও দুনিয়াকে এভাবে আতংকিত করে নি। তখনও মানুষ ভয় পেয়েছে বটে; কিন্তু সে আতংক সীমাবদ্ধ ছিল নির্দিষ্ট এলাকায়। অন্য এলাকার মানুষ সে খবর পেয়েছে বটে; কিন্তু দূরের বাদ্য বলে এত ভয়ার্ত হয় নি। এবার ছবি একবারেই আলাদা। ভয়, আতংক সারা দুনিয়ায়।

কেন এমন সৃষ্টিছাড়া আতংক। মানুষ মৃত্যু জেনেই যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে। কাতাওে কাতারে মরে। মারী, মড়ক, ঝড়-ঝঞ্ঝা, ভূমিকম্প, সুনামি, যুদ্ধ, দুর্ভিক্ষ কতভাবেই না মানুষ মরে। কিন্তু এবারের ঘটনা অতীতের কোন কিছুর সাথে মেলানো যাচ্ছে না, ব্যাখ্যা করা যাচ্ছে না। এমন তো নয়, এই প্রথম মানুষ রোগের ওষুধ খুঁজে পাচ্ছে না! এমন তো নয় যে, এই প্রথম মানুষ রোগব্যাধির কাছে অসহায় হয়ে পড়েছে। এমনও নয় যে, এই প্রথম তারা কোন প্রতিষেধক টিকা খুঁজে পাচ্ছে না।

ফ্রি খাদ্যের জন্য নিউইয়র্কের বোস্টনে মানুষের লাইন। – দি গার্ডিয়ান

বরং এখন মানুষের হাতের কাছে অন্তত অর্ধশত ওষুধ আছে যা তারা কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় কিছু না কিছু সুফল পাচ্ছে। চিকিৎসা ব্যবস্থাপনাও তুলনামূলকভাবে সামান্য। সবচেয়ে মারাত্মক পরিস্থিতিেিত ভেন্টিলেটর লাগে। তুলনায় প্রতিদিন মানুষ এমন সব রোগে ভুগছে যার চিকিৎসা খুবই ব্যয়বহুল। যেমন, ক্যান্সার, এইডস, কিডনি ডায়ালিসিস, স্ট্রোক, হার্ট ব্লক, লিভার সিরোসিস, প্যারালিসিস ইত্যাদি ইত্যাদি। কোভিড-১৯ দীর্ঘ ভোগান্তির কারণও নয়। সর্বাধিক ১৪ দিন। এর মধ্যেই সেরে উঠছে শতকরা ৯৬ জন রোগী। তাদেও ৮০ ভাগকে হাসপাতালেও নেয়া দরকার হচ্ছে না। বাড়িতে রেখেই কিছু নিয়ম মানা এবং স্বল্পমূল্যের কিছু ওষুধেই নিরাময় হচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও অন্যান্য নানা স্বাস্থ্যবিষয়ক গবেষণা সে কথাই বলছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য স্ংস্থা মানুষকে ভয় না পেয়ে কিছু নিয়ম, কিছু স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দিচ্ছে।

চীনে কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবের পর গতকাল ২৫ এপ্রিল বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টা পর্যন্ত যে তথ্য আমাদেও হাতের কাছে আছে সেটা দেখা যাক। প্রসঙ্গত বলে রাখি, করোনা বিষয়ক আপডেট যা মিডিয়ায় প্রকাশিত হচ্ছে তার প্রধান উৎস দুটো; ১) আমেরিকার জনস হফকিন্স বিশ্ববিদ্যালয় এবং ২) ওয়ার্ল্ডওমিটার ডট ইনফো। এই দুটো সংস্থা প্রতি মুহূর্তের সবচেয়ে নির্ভযোগ্য আপডেট জানাচ্ছে। আমরা এখানে ওয়ার্ল্ডওমিটার ডট ইনফো যে তথ্য দিচ্ছে তাই ব্যবহার করেছি।

সূত্র: ওয়ার্ল্ডওমিটার ডট ইনফো

বিশ্বের  সর্বশেষ (২৫ এপ্রিল বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টা পর্যন্ত) তথ্য দেখুন। এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ২৮ লাখ ৪৫ হাজার ৮৫৯ জন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৯৭ হাজার ৮৪৬ জনের। আরোগ্যলাভ করেছেন ৮ লাখ ১১ হাজার ৬৮৭ জন। চিকিৎসাধীন আছেন ১৮, ৩৬ হাজার ৩২৬ জন। চিকিৎসাধীন রোগীর মধ্যে শংকাজনক অবস্থা ৫৮ হাজার ৩০৩ জনের। এই সংখ্যা চিকিৎসাধীন রোগীর মাত্র ৩%। আরেকটা হিসেব দেখুন। গত ২৪ ঘন্টায় (বাংলাদেশে ২৪ এপ্রিল সকাল ৬টা থেকে ২৫ তারিখ সকাল ৬টা পর্যন্ত) সারা দুনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে  ১ লাখ ৫ হাজার ৮২৫ জন যা প্রতি ১০ লাখ মানুষের হিসেবে ৩৬৩ জন। একই সময়ে মারা গেছেন ৬,১৮২ জন। এর মধ্যে ১৯৫৯ জনই আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে। সারা বিশ্বে একদিনে মৃত্যুর সংখ্যাও কমে গেছে একটি সারণি দেয়া হল, যেখানে দেখানোর চেষ্টা করা হয়েছে সবচেয়ে মৃত্যু হয়েছে এমন ১৬টি দেশের ৮টিতেই নতুন কোন সংক্রমণ হয় নি গত চব্বিশ ঘন্টায়। এই তালিকা আরও প্রলম্বিত করলে আমরা দেখব করোনার হানা  দুর্বল হচ্ছে। আমেরিকায় করোনা সামাল দেয়া গেলে আতংক অনেক কসে যাবে। তবে এখন করোনা জোর থাবা বসাচ্ছে আমাদেও উপমহাদেশে। তা নিয়ে আগামি কাল একটু বিশদ আলোচনা করতে চাই।

 

আমিরুল আলম খান
যশোর শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান
amirulkhan5252@gmail.com

Warning: A non-numeric value encountered in /home/njybpvbk/public_html/wp-content/themes/Newspaper/includes/wp_booster/td_block.php on line 1009

Warning: Use of undefined constant TDC_PATH_LEGACY - assumed 'TDC_PATH_LEGACY' (this will throw an Error in a future version of PHP) in /home/njybpvbk/public_html/wp-content/plugins/td-composer/td-composer.php on line 109

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here